Headlines
Loading...
গাছ লাগানো এবং পরিচর্যার ওপর নাম্বার ওয়ার্ক এডুকেশনে - সিদ্ধান্ত বর্ধমান জেলা পরিষদের

গাছ লাগানো এবং পরিচর্যার ওপর নাম্বার ওয়ার্ক এডুকেশনে - সিদ্ধান্ত বর্ধমান জেলা পরিষদের


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ গাছ লাগাও পরিবেশ বাঁচাওয়ের পর 'সবুজ বাংলা সবুজ হাসি, দেখতে আমরা সবাই ভালবাসি' - এই শ্লোগানেই স্কুলের ওয়ার্ক এডুকেশনের সঙ্গে যুক্ত করা হল গাছ লাগানো এবং গাছ পরিচর্যাকে। আগামী ১৪ - ২১ জুলাই জেলা জুড়ে অনুষ্ঠিত হবে অরণ্য সপ্তাহ। আর সেই অরণ্য সপ্তাহেই এবছর বর্ধমান জেলা পরিষদ পালন করতে চলেছে বনমহোৎসব - ২০১৯। 

পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া জানিয়েছেন, এবছর বনমহোৎসব এর মুল অনুষ্ঠানটি পালন করা হবে দক্ষিণ দামোদরের তোড়কোনা উচ্চ বিদ্যালয়ে। এই বিষয়ে সোমবার সসভাধিপতি, জেলা মুখ্য ও উপ বনাআধিকারিক এবং অন্যান্য সরকারি আধিকারিকগন তোড়কোনা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গন ঘুরে দেখেন। মূল অনুষ্ঠানে রাজ্যের দুই মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ এবং সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী ছাড়াও রাজ্যের বনমন্ত্রীকেও হাজির করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। সভাধিপতি জানিয়েছেন,এই অনুষ্ঠান প্রাঙ্গণ থেকেই জেলার বিভিন্ন স্কুলকে ১০০টি করে চারাগাছ প্রদান করা হবে। মোট ২ লক্ষ ৩৬ হাজার গাছ বিতরণ করা হবে। 
 
সভাধিপতি জানিয়েছেন,ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে পরিবেশ সচেতনতা বাড়াতে এবং গাছ লাগানো এবং তা পরিচর্যার মাধ্যমে বড় করে তোলার প্রতি আগ্রহ বাড়াতে স্কুলের ওয়ার্ক এডুকেশনের মধ্যে এই বিষয়টিকে যুক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, প্রতিটি স্কুলকে তাঁদের চাহিদা মতই গাছ দেওয়া হবে। পাশাপাশি ছাত্রছাত্রীদের হাতে যে গাছ তুলে দেওয়া হবে সেই গাছ তারা স্কুল প্রাঙ্গণে লাগানো, তা বড় করার জন্য পরিচর্যা করা - এর ওপর ওয়ার্ক এডুকেশনে নাম্বার দেওয়া হবে। সমস্ত প্রক্রিয়া টির দায়িত্ত্বে থাকবে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয় কত্রিপক্ষ। এর ফলে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে একদিকে যেমন পরিবেশ সচেতনতার বিষয়ে আগ্রহ বাড়বে, পাশাপাশি আধিক পরিমানে গাছ লাগানোর ফলে প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষ্যায় ছোট থেকেই সকলকে সজাগ করার উদ্যোগ নেওয়া যাবে।
(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});