Headlines
Loading...
নাবালিকা ছাত্রীর সঙ্গে অশালীন আচরণ, শিক্ষককে অভিভাবকদের গণপিটুনি

নাবালিকা ছাত্রীর সঙ্গে অশালীন আচরণ, শিক্ষককে অভিভাবকদের গণপিটুনি



ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বাঁকুড়াঃ এক প্রাথমিক স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধে পড়ুয়াদের সাথে অভব্য আচরনের অভিযোগ উঠল বাঁকুড়ার ইন্দাসে। ইন্দাস বালিকা বিদ্যালয় ( বাবু সাহেব স্কুল ) এর শিক্ষক ফীরোজ খাঁন দীর্ঘ দিন ধরে চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীদের সঙ্গে শারীরিক নির্যাতন করে চলেছেন বলে অভিযোগ করেছেন আবিভাবকরা। বিষয়টি প্রধান শিক্ষিকা কাজল সাহাকে মৌখিকভাবে জানালেও কোন কাজ হয়নি বলে অভিযোগ। একাধিক ছাত্রীর অভিযোগের পরই বুধবার অভিভাবকেরা একত্রিত হয়ে ওই শিক্ষককে ঘিরে প্রথমে বিক্ষোভ দেখায় এবং পড়ে বেধড়ক মারধোরও করা হয়। 

অভিভাবকদের একাংশের অভিযোগ, ওই স্কুল শিক্ষক বেশকিছু দিন ধরে পড়ুয়াদের সাথে অভব্য আচরন করে চলেছিল। এমনকি ছাত্রীদের শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে হাত দেওয়ার অভ্যাসও ছিল ওই শিক্ষকের বলে অভিযোগ। বেশ কয়েকজন ছাত্রী ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে বাড়িতে ঘটনার বিষয়ে জানালে এদিন অভিভাবকরা সমবেত ভাবে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে সামিল হন।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ইন্দাস থানার পুলিশ। এরপর মারমুখী অভিভাবকদের হাত থেকে অভিযুক্ত শিক্ষককে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ । লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে ওই শিক্ষককে আটক করেছে ইন্দাস থানার পুলিশ। ঘটনার তদন্ত চলছে বলে পুলিশ সূত্রের খবর।

নিগৃহিতা ছাত্রীর বাবা জানান, তাঁর মেয়ে চতুর্থ শ্রেণীতে পড়ে। গত তিন মাস ধরে মেয়েকে শিক্ষক ফিরোজ খান শারিরীকভাবে নিগ্রহ করছে। শুধু তার মেয়ে নয়, চতুর্থ শ্রেণীর অন্যান্য ছাত্রীরাও একইভাবে অত্যাচারের শিকার বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, মেয়ে স্কুলে গিয়ে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গেলেও ঐ শিক্ষক সাথে দেখতে যান বলে অভিযোগ। 

নিগৃহীতা ছাত্রীর মা বলেন, নানান অছিলায় ওই শিক্ষক মেয়ের শরীরের বিভিন্ন অংশে হাত পর্যন্ত দেন। এলাকার সমস্ত অভিভাবকরা অভিযুক্ত শিক্ষক ফিরোজ খানের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।

প্রধান শিক্ষিকা কাজল সাহা অভিভাবকদের মৌখিক অভিযোগের প্রসঙ্গ স্বীকার করে বলেন, ওনারা তখন বিষয়টি কাউকে না জানাতে বলায় আমি কাউকেই জানাইনি। এখন এবিষয়ে কিছু ‘উল্টোপালটা’ বললে তার করার কিছু নেই বলেই তিনি দাবী করেন।

0 Comments: