Headlines
Loading...
বৃদ্ধাকে বাড়ি থেকে উৎখাত করার অভিযোগ ঘিরে চাঞ্চল্য বর্ধমানে

বৃদ্ধাকে বাড়ি থেকে উৎখাত করার অভিযোগ ঘিরে চাঞ্চল্য বর্ধমানে


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ আশির্দ্ধো নিঃসন্তান এক বৃদ্ধাকে তাঁরই বাড়ি থেকে উৎখাত করে তা দখলের চেষ্টা করছেন এক ভাড়াটিয়া। এমনই অভিযোগ জানালেন বর্ধমান শহরের আমড়াতলা গলির বাসিন্দা সেই বৃদ্ধা। উল্লেখ্য, কলকাতার নেতাজীনগরে দম্পতি খুনের ঘটনায় নিঃসন্তান মানুষের ওপর অত্যাচার বন্ধে সরব হয়েছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী। ইতিমধ্যেই এব্যাপারে পুলিশকে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ এবং এই ধরণের বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের সাহায্যে পুলিশকে ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ দিয়েছেন। তারপরেও  এদিনই এই বৃদ্ধা অভিযোগ করেছেন, বর্ধমান থানায় অভিযোগ জানানোর পর পুলিশ তাঁর বাড়িতে গেলেও কোনো ব্যবস্থাই করেনি। পুলিশ ভাড়াটিয়ার সঙ্গে কথা বলেই চলে যান। 

বর্ধমান শহরের আমড়াতলা গলির বাসিন্দা প্রেমলতা পোদ্দার জানিয়েছেন, প্রায় ২ কাঠা জায়গার ওপর তাঁর দোতলা বাড়ি রয়েছে। নিঃসন্তান প্রেমলতাদেবীর স্বামী ৪০ বছর আগে মারা যান। স্বামী বেঁচে থাকাকালীনই নীচের তলায় সোনারুপার কাজ করা একজনকে ভাড়া দেন। প্রেমলতাদেবীর সন্তানাদি না থাকায় তিনি তাঁর ভাইয়ের মেয়েকেই নিজের মেয়ে হিসাবে মানুষ করছেন। প্রেমলতাদেবীর অভিযোগ, বসন্ত খোরক ওরফে উত্তম খোরক এখন তাঁকে মারধর করছেন। জলের লাইন, বিদ্যুতের লাইন কেটে দিচ্ছে। থানায় অভিযোগ জানিয়েও কোনো প্রতিকার না হওয়ায় বাধ্য হয়েই তিনি বুধবার জেলাশাসকের কাছে আসেন বিচার চাইতে। 

অন্যদিকে, ওই ভাড়াটিয়া উত্তম খোরক জানিয়েছেন, ওই বৃদ্ধা মিথ্যা অভিযোগ করেছেন। তাঁর ওপর কোনো অত্যাচারই করা হয়নি। তিনি জানিয়েছেন, ওই বৃদ্ধা তাঁর বাড়িটিকে বিক্রি করতে চান। যেহেতু তিনি দীর্ঘদিন ভাড়াটিয়া হিসাবে রয়েছেন তাই বৃদ্ধার কথামতই তিনি ওই বাড়িটিকে কিনতে চেয়েছেন। কিন্তু তাঁকে বিক্রি না করে অন্যজনকে বিক্রি করতে চাইছেন প্রেমলতাদেবী। তাই তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করছেন। এমনকি তাঁকেই ভাড়াটিয়া হিসাবে উচ্ছেদ করার চেষ্টা করছেন ওই বৃদ্ধা।

0 Comments: