Headlines
Loading...
বর্ধমানে দুটি গোষ্ঠীর সংঘর্ষের পর বিজেপির জেলা যুবমোর্চা কমিটিকে নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হল !

বর্ধমানে দুটি গোষ্ঠীর সংঘর্ষের পর বিজেপির জেলা যুবমোর্চা কমিটিকে নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হল !


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ সম্প্রতি বর্ধমান শহরে বিজেপির দুটি গোষ্ঠীর সংঘর্ষের ঘটনায় শেষমেশ দলের যুব মোর্চার কমিটিকে কার্যত নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হল। পাশাপাশি দলীয় পর্যবেক্ষককে পাঠিয়ে এই ঘটনার বিস্তারিত রিপোর্ট চেয়ে পাঠানো হল। আর এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে বর্ধমান শহর জুড়ে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার বিজেপির জেলা অফিসে নব্য ও পুরনো দুই গোষ্ঠীর মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ বাধে। অভিযোগ, এই সময়,একটি গোষ্ঠী কয়েক রাউণ্ড গুলিও চালায়। পরে নব্য গোষ্ঠীর লোকজন বিজেপির যুবমোর্চার জেলা সভাপতি শ্যামল রায়ের বাড়িতে গিয়ে হামলা চালায়, ভাঙচুর করে। এদিকে, এই ঘটনায় রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক শোরগোল পড়ে যায়। রীতিমত অস্বস্তির মধ্যে পড়ে বিজেপির জেলা নেতৃত্ব। শ্যামল রায় দাবী করেন, সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া সিপিএম থেকে আগত বিশ্বজিত সেন ওরফে খোকন সেনকে বিজেপি থেকে না তাড়ালে তাঁরাই দল ছেড়ে বেরিয়ে যাবেন। এদিকে, এই পরিস্থিতি জেলা বিজেপি রাজ্যের কাছে একটি রিপোর্টও পাঠায়।

বিজেপি সূত্রে জানা গেছে, প্রাথমিক সেই রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করেই বিজেপির যুব মোর্চার কমিটিকে নিষ্ক্রিয় থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যদিও যুবমোর্চার রাজ্য সভাপতি দেবজিত সরকার জানিয়েছেন, এটা রুটিন বিষয়। বর্ধমানের কোনো ঘটনার জন্য এটা করা হয়নি। তিনি জানিয়েছেন, লোকসভা নির্বাচনের পর বিজেপির সমস্ত শাখা সংগঠনেই কিছু রদবদল হচ্ছে। জেলাতেও রদবদল হচ্ছে। তাই জেলা কমিটিকে আপাতত নিষ্ক্রিয় বা কাজ না করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যদিও তিনি জানিয়েছেন, বর্ধমানের ওই ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত রিপোর্ট দিতে দলীয় পর্যবেক্ষক শৌমিক রাহাকে বর্ধমানে পাঠানো হয়েছে। সেদিন ঠিক কি ঘটেছিল সে সম্পর্কে খোঁজখবর নিয়ে তিনি রিপোর্ট দেবার পরই পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

0 Comments: