728x90 AdSpace

Latest News

Wednesday, 22 May 2019

রাত পেরোলেই ভোটের ফল ঘোষণা, তবু আবিরের বাজার মন্দা,দুশ্চিন্তায় ব্যবসায়ীরা



ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ রাত পোহালেই ভাগ্য নির্ধারণ রাজ্যের ৪২টি কেন্দ্রের প্রার্থীদের। টানটান উত্তেজনায় ফুটছে সব রাজনৈতিক দলই। রাজ্যের ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস ইতিমধ্যেই যুদ্ধজয়ের প্রাক প্রস্তুতি সেরে ফেলেছে। কেউ কেউ বিজয় মিছিলেরও প্রস্তুতি সেরে ফেলেছেন বুধবারই। কিন্তু তাতেও দোলাচল কাটছে না শহরের আবির ব্যবসায়ীদের। বিশেষত, এই ধরণের টানটান উত্তেজনায় ভরা ভোট মরশুমে যে হারে এতাবৎকাল বিভিন্ন রঙের আবির বিক্রি হয়েছে, ভোট গণনার আগের দিন তথা মাত্র কয়েকঘণ্টা আগেও খোদ বর্ধমান শহরের আবিরের হোলসেল এবং পাইকারী ব্যবসায়ীরা তারপরও দুশ্চিন্তায় রয়েছেন। 

বর্ধমান শহরের রাণীগঞ্জ বাজার, তেঁতুলতলা বাজার এলাকায় রয়েছে বেশ কয়েকটি আবীরের স্টকিষ্ট। ব্যবসায়ী সিকান্দর খান জানিয়েছেন, সাধারণত কলকাতা থেকেই বর্ধমানে আবির আসে। এবারেও ভোটের ফলাফলকে মাথায় রেখেই তাঁরা বিভিন্ন রকমের এবং বিভিন্ন রংয়ের আবির মজুত করেছেন। যদিও তার মধ্যে গেরুয়া আর সবুজ রঙের আবির ই বেশি। কিন্তু ভোটের ফলাফল কি হবে বা কোন রংয়ের আবির বিক্রি হবে কিছুই বুঝে উঠতে পারছেন না। তিনি জানিয়েছেন,সবুজ, গেরুয়া ছাড়াও কিছু হলুদ এবং গোলাপি আবিরও মজুত করেছেন। এবছর আবিরের দাম ৩০ কেজির বস্তা ৬০০ টাকা। তিনি জানিয়েছেন, আবিরের ব্যাপারে খোঁজ খবর নিচ্ছেন অনেকেই, কিন্তু বিক্রি নেই। 

পাইকারী ব্যবসায়ী সেখ টোটন জানিয়েছেন আবিরের মজুদের অভাব নেই। কিন্তু ছোট ব্যবসায়ীরা ভয়ে আবির তুলতে পারছে না। কিছু বড় দোকানদার ৫০ বস্তা সবুজ আবির নিলেও কিছু গেরুয়াও নিচ্ছেন। অনেকে খুচরো আবিরের খোঁজ নিলেও বিক্রি হচ্ছে না। তিনি জানিয়েছেন, কে জিতবে আর কে হারবে কেউই বুঝতে পারছেন না। তাই ভয়ে ঝুঁকি নিয়ে কেউ নির্দিষ্ট কোনো রংয়ের আবির তুলতে চাইছেন না। তিনি জানিয়েছেন, এবারের ভোটের গতিপ্রকৃতি দেখে মনে হচ্ছে দলীয় সমর্থকরা অপেক্ষা করছেন কি হয় তার দিকে। সবুজ আবিরের পাশাপাশি গোলাপির খোঁজ করছেন অনেকেই। 

খুচরো এক ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, চলতি আবিরের পাশাপাশি এবার তাঁরা গুণগত উচ্চমানের কিছু আবিরও তুলেছেন। ৫ কেজির দাম ৪৫০ টাকা। সবুজ এবং গেরুয়া উভয় রংয়েরই এই আবির মজুত রয়েছে। ওই ব্যবসায়ী জানিয়েছেন,যা মজুদ আছে তাতে আগামিকাল কোনো সমস্যা হবে না। পরে চাহিদা বুঝে মাল তোলার অপেক্ষায় রয়েছেন তাঁরা। যদিও রোজা চলায় কিভাবে বিজয় মিছিল হবে তা নিয়েও তাঁরা সন্দিহান। অন্যদিকে, গলসীর তৃণমূল বিধায়ক অলোক মাঝি জানিয়েছেন, প্রচুর পরিমাণে আবির তাঁরা মজুদ করেছেন। কালকে সবুজ আবিরেই ফের অকাল দোল উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। বর্ধমান পূর্ব লোকসভা কেন্দ্রের গণনা হবে এমবিসি ইনষ্টিটিউটে। সেখানকার দায়িত্বে থাকা প্রাক্তন তৃণমূল কাউন্সিলার মহম্মদ সেলিম জানিয়েছেন, আবির মজুদ হয়েছে জায়গায় জায়গায়। এমনকি তাঁরা বিজয় মিছিল এবং বিজয় উল্লাসের জন্যও তৈরী। পাশাপাশি বিজেপির জেলা যুব মোর্চার সভাপতি শ্যামল রায় জানিয়েছেন, ফলাফল ইতিমধ্যেই মানুষ আঁচ করতে পেরেছে, শুধু আবির নয়, বিজয়ল্লাসের জন্য যাবতীয় উপকরন নিয়ে তারা প্রস্তুত। এখন শুধু ফল ঘোষণার অপেক্ষায় রয়েছেন তাঁরা।
রাত পেরোলেই ভোটের ফল ঘোষণা, তবু আবিরের বাজার মন্দা,দুশ্চিন্তায় ব্যবসায়ীরা
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top