728x90 AdSpace

Latest News

Saturday, 20 April 2019

ভোট দিতে কি ভয় দেখানো হচ্ছে ? জিজ্ঞাসা টহলরত আধা সামরিক বাহিনীর



ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ 'এখানে ভোটার কার্ড কেড়ে নেওয়া, ভয় ভীতি দেখানো হচ্ছে নাতো ? আপনাদের ভোট দিতে যেতে কোনও অসুবিধে হয়?' সাধারণ মানুষের কাছে এই জানতে চাইলো কেন্দ্রীও বাহিনী। শনিবার সকালে আধা সামরিকবাহিনী মেমারীর মহেশডাঙা ক্যাম্প থেকে মেমারী শহর, মেমারির সুলতানপুর, অতি স্পর্শকাতর এলাকা মেমারির পারিজাত নগর, উদয়পল্লী পশ্চিম,উদয়পল্লী উত্তর ও দক্ষিণ এলাকায় রুট মার্চ করল। 

আগামী ২৯ এপ্রিল পূর্ব বর্ধমান জেলায় দুটি লোকসভা আসন বর্ধমান দুর্গাপুর এবং বর্ধমান পূর্ব আসনের ভোট গ্রহণ হবে। ইতিমধ্যেই বর্ধমানে চলে এসেছে ১ কোম্পানী আধা সামরিক বাহিনী। পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, এই আধা সামরিক বাহিনীকে ৩টি গ্রুপে ভাগ করে বিভিন্ন এলাকায় রুট মার্চ করানো হচ্ছে। শনিবার সকালেই মেমারী থানার চকদিঘী মোড় থেকে আধা সামরিক বাহিনীর একটি প্লাটুন রওনা দেয়। পারিজাতনগর,বহেরা, সালদা, দেওলিয়া, সরডাঙা মোড় প্রভৃতি এলাকা টহল দেয়। এরই পাশাপাশি নুদিপুর থেকে চোত্খণ্ড, শোভনা,মোবারকপুর, পূণ্যগ্রাম টহল দেয় আধা সামরিক বাহিনী। 

শনিবার সকালে আধা সামরিক বাহিনীর জওয়ানরা সরাসরি গ্রামের বাসিন্দাদের ডেকে তাঁদের জিজ্ঞাসা করেছেন, ভোট নিয়ে কোনো ভয় আছে কিনা। আধা সামরিক বাহিনীর সঙ্গে থাকা নির্বাচন কমিশনের প্রতিনিধিরা বাসিন্দাদের হাতে ধরিয়ে দিয়েছেন একটি করে লিফলেট। যেখানে টোল ফ্রি নম্বর ১৯৫০ ছাড়াও মেমারী থানা,পর্যবেক্ষকদের ফোন রয়েছে। এদিন আধা সামরিকবাহিনীর জওয়ানরা গ্রামবাসীদের জানিয়েছেন, যদি কোনো সমস্যা হয় এই টোল ফ্রি নাম্বারে জানালেই তাঁরা হাজির হবেন। এদিন গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, রাজ্য পুলিশে তাঁদের আস্থা নেই। কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকলে নির্ভয়ে ভোট দিতে পারবেন তাঁরা। কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা এদিন তাঁদের আশ্বাস দিয়েছেন, তাঁরা পাশে আছেন।
ভোট দিতে কি ভয় দেখানো হচ্ছে ? জিজ্ঞাসা টহলরত আধা সামরিক বাহিনীর
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top