Headlines
Loading...
‘লোকসভার পরেই ভেঙে যাবে তৃণমূল সরকার! রাজ্যে ফের ভোট ৬ মাসের মধ্যেই’,অহলুবালিয়ার বক্তব্য ঘিরে বিতর্ক

‘লোকসভার পরেই ভেঙে যাবে তৃণমূল সরকার! রাজ্যে ফের ভোট ৬ মাসের মধ্যেই’,অহলুবালিয়ার বক্তব্য ঘিরে বিতর্ক


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ 'বাংলায় পুলিশ কর্মীরা চাকরের মত রয়েছে। অন্য রাজ্যে পুলিশ কর্মীরা যে সুযোগ সুবিধা পান, এখানে তা পাননা। বাংলার মানুষকে পুলিশ দিয়ে চাপের মধ্যে রাখা হয়েছে। সাধারণ মানুষের স্বাধীনভাবে চলাফেরা করার উপায় নেই। স্বাধীন মত প্রকাশের অধিকার নেই। কেউ নিজের স্বাধীন মত প্রকাশ করতে গেলেই তাদের নানাভাবে ফাঁসিয়ে দেওয়া হচ্ছে। কয়েকদিন আগে বীরভূমেও এই ঘটনা ঘটেছে। মিথ্যা গাঁজা কেসে ফাঁসিয়ে দেওয়া হয়েছে। আর তাই লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে বাংলার পুলিশ কর্মীদের অন্য রাজের মতোই সুযোগ সুবিধা দেবার জন্য চাপ সৃষ্টি করবে।' বুধবার বর্ধমান টাউন হলে কর্মীসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে একথা বললেন বর্ধমান দুর্গাপুর লোকসভা আসনের বিজেপি প্রার্থী সুরেন্দ্রজিত সিং অহলুবালিয়া।

তিনি বলেন, দেশে একটা আইন আছে, একটা গণতন্ত্র আছে। বিজেপি লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে সংখ‌্যাগরিষ্ঠতা পেলে এই ধরণের সুযোগ দেবার জন্য কেন্দ্রের কাছে চাপ সৃষ্টি করবে। এদিন টাউন হলে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন, 'সন্ত্রাসমুক্ত পশ্চিমবঙ্গ একমাত্র মোদি করতে পারবে। বাংলায় ৪২ টি আসনের মধ্যে বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে ৬ মাসের মধ্যে মোদি সরকারকে দিয়ে বিধানসভা নির্বাচন করিয়ে দেবো। সন্ত্রাস থেকে মুক্তি করানোর জন্যই এই নির্বাচন করানো হবে।'

এদিন টাউন হলের এই সভায় বিজেপি নেতা আইনুল হকের নের্তৃত্বে প্রায় ১০০ জন সিপিএম ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন। আইনুল হক জানিয়েছেন, আরও অনেকেরই যোগ দেবার কথা ছিল। কিন্তু তৃণমূল তাদের এদিনের সভায় আসতে বাধা দিয়েছে। এদিকে, বিজেপি প্রার্থীর এই বক্তব্য নিয়ে রীতিমত তোলপাড় শুরু হয়েছে। এব্যাপারে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে নির্বাচন কমিশনে নালিশ জানানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এই ধরণের বক্তব্যে বিজেপি প্রার্থীর প্রার্থীপদ খারিজ করারও আবেদন জানানো হচ্ছে বলে তৃণমূল সূত্রে জানা গেছে। যদিও এব্যাপারে বিজেপি প্রার্থীকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানিয়েছেন, তিনি এই ধরণের কোনো কথাই বলেন নি। তিনি বলেছেন, 'বাংলার মানুষ আতংকে রয়েছেন। বাংলার মানুষকে পুলিশ দিয়ে চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে। এই অবস্থায় কোনো সরকার চলতে পারে না।'

0 Comments: