Headlines
Loading...
১৫ দিন পর ব্যবসায়ী এবং পুলিশের সহযোগিতায় বোনকে ফিরে পেলেন দাদা

১৫ দিন পর ব্যবসায়ী এবং পুলিশের সহযোগিতায় বোনকে ফিরে পেলেন দাদা



ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ ভাতার পুলিশের উদ্যোগে দুই সপ্তাহ পর বাড়ি ফিরলেন মানসিক ভারসাম্যহীন এক মহিলা। গত দু সপ্তাহ আগে কাটোয়া বর্ধমান রুটের কাটোয়া বর্ধমানগামী একটি বাস থেকেই মানসিক ভারসাম্যহীন এক মহিলাকে ভাতার থানার সামনে কে বা কারা নামিয়ে দিয়ে চলে যায়। এরপর ওই মহিলা ভাতার বাজারের বিভিন্ন প্রান্তে ঘোরাফেরা করছিলেন। ভাতার বাজারের ব্যবসায়ী লালু সেখ জানিয়েছেন,তাঁরা ওই মহিলাকে এই অবস্থায় দেখে তাঁর কাছ থেকে বাড়ির ঠিকানা জানতে চান। এরপরই তিনি একটি কাগজে তাঁর পরিচয় লিখে জানান। ওই মানসিক ভারসাম্যহীন মহিলার বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনা জেলার খড়দা থানার স্কুলমোড় কালিতলা এলাকায়। নাম রেবতি ভট্ট, বয়স ৫২ বছর। 

.লালু সেখ জানিয়েছেন, এরপর ভাতার বাজারের বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী গত শনিবার ভাতার থানার পুলিশকে এই বিষয়টি জানান। পুলিশ ওই মানসিক ভারসাম্যহীন মহিলাকে ভাতার থানায় নিয়ে গিয়ে রাখেন। এরপর ভাতার থানার পুলিশ যোগাযোগ করেন খড়দা থানার সঙ্গে। খড়দা থানার পুলিশ ওই ঠিকানায় যোগাযোগ করেন। সোমবার খড়দা থেকে ভাতারে আসেন রেবতিদেবীর দাদা গোপাল ভট্ট। তাঁর হাতে তুলে দেওয়া হয় রেবতিদেবীকে। 

এদিন গোপালবাবু রীতিমত প্রশংসা করেছেন ভাতার বাজারের ব্যবসায়ী ও ভাতার থানার পুলিশের। তিনি জানিয়েছেন, তাঁর বোন রেবতী ভট্ট মানসিক ভারসাম্যহীন। বেশ কয়েক বছর ধরে এই রোগে ভুগছেন। প্রতি দিনই তাকে এই রোগের ঔষধ খেতে হয়। হঠাৎই প্রায় ১৫ দিন আগে বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যান তিনি। এরপর বহু খোঁজাখুঁজি করেও বোনের কোনো হদিশ পাননি। রবিবার খড়দা থানা থেকে খবর পান বোনের। বোনকে ফিরে পেয়ে খুশী গোপালবাবু।

0 Comments: