Headlines
Loading...
একটু একটু করে চড়ছে বর্ধমান জেলায় ভোটের প্রচার

একটু একটু করে চড়ছে বর্ধমান জেলায় ভোটের প্রচার


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ রবিবারই বিজেপির বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের প্রার্থী সৌমিত্র খাঁ প্রথম প্রচার শুরু করে ঘোষণা করেছিলেন, তিনি যেদিন আদালতের নির্দেশে নিজের কেন্দ্রে প্রচারে ঢুকবেন সেদিন থেকে বিষ্ণুপুরে  তৃণমূলের আর কোনো পার্টি অফিস থাকবে না, রাতারাতি বদলে যাবে বিজেপিতে। আর তার ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই সোমবার দুপুরে বিষ্ণুপুর লোকসভার অধীন বর্ধমানের খণ্ডঘোষ বিধানসভা এলাকায় প্রচারে এসে ঝড় তুলে দিয়ে গেলেন এই কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী শ্যামল রায়। 

এদিন দুপুরে তিনি খণ্ডঘোষের বাদুলিয়ায় একটি কর্মী সভাও করেন। পরে রোড শো করতে গিয়ে তিনি রাস্তাতেই শিশুদের কোলে তুলে নিয়ে ভোটারদের বার্তা দিয়ে গেলেন তিনি তাঁদের সঙ্গে রয়েছেন। এদিন তৃণমূলের এই প্রার্থীকে পেয়ে দলীয় কর্মীরা তাঁকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেন। এদিন শ্যামলবাবু জানিয়ে যান, রেলমন্ত্রী থাকাকালীন মমতা বন্দোপাধ্যায় যে সমস্ত রেলের প্রকল্প ঘোষণা করেছিলেন সেই সমস্ত প্রকল্পগুলিকে সাধারণ মানুষের স্বার্থে চালুর দাবীতে তিনি লড়াই করছেন। এই রেল প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর থেকে তারকেশ্বর পর্যন্ত রেলপথ। কিন্তু কেন্দ্রের বিজেপি সরকার সেই সমস্ত প্রকল্পগুলি বন্ধ করে দিয়েছেন। এই বঞ্চনাকেই জনতার সামনে তুলে ধরছেন তিনি।


সোমবার বিষ্ণুপুর লোকসভার তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী শ্যামল সাতরা পুর্ব বর্ধমানের খন্ডঘোষ বিধানসভা এলাকায় প্রচার করলেন। এদিন বাদুলিয়া থেকে একটি পদযাত্রা সহ কর্মী সভাও করেন। হাজির ছিলেন বর্ধমান জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধাড়া, খন্ডঘোষের বিধায়ক নবীন চন্দ্র বাগ, ব্লক সভাপতি অপার্থিব ইসলাম প্রমুখরাও। অপরদিকে, এদিনই বর্ধমান পূর্ব লোকসভা আসনের বিজেপি প্রার্থী পরেশ চন্দ্রদাস রায়না বিধানসভার শ্যামসুন্দরে একটি কর্মী বৈঠক করেন। বিজেপির একটি দলীয় অফিসেরও উদ্বোধন করেন তিনি। পরেশবাবু জানিয়েছেন, তিনি ৫০ হাজারেরও বেশি ভোটে জয়ী হবেন।

0 Comments: