Headlines
Loading...
কাশ্মীর সমস্যাকে জিইয়ে রাখা হয়েছে, মিটতে পারে আধঘণ্টায় অভিমত কাশ্মীরী শালওয়ালাদের

কাশ্মীর সমস্যাকে জিইয়ে রাখা হয়েছে, মিটতে পারে আধঘণ্টায় অভিমত কাশ্মীরী শালওয়ালাদের



ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ কাশ্মীর সমস্যাকে কার্যত জিইয়ে রাখা হয়েছে। দিল্লীর সরকার কাশ্মীরবাসীর সঙ্গে এই সমস্যা সমাধানের বিষয়ে কোনো আলোচনাই করছে না। আর তাই বিগত ৭০ বছর ধরে এই সমস্যা থেকেই গেছে আর বেড়ে চলেছে - বলছেন খোদ জম্মু-কাশ্মীর, শ্রীনগর এলাকার বাসিন্দারা। প্রতিবছর জম্মু কাশ্মীর, শ্রীনগর প্রভৃতি এলাকা থেকে কয়েক হাজার কাশ্মীরি শাল, সোয়েটার বিক্রেতা এই রাজ্যে আসেন রুটি রুজির টানে। বর্ধমান শহরেও প্রায় ২০০ থেকে ২৫০ জন শাল, সোয়েটার প্রভৃতি নিয়ে ব্যবসা করতে আসেন এই কাশ্মীরিরা। একটানা তাঁরা ৬ মাস থাকেন এই ব্যবসার কাজে। শীত চলে যেতেই তাঁরা ফিরে যান যে যার বাড়ি। চলতি ফেব্রুয়ারী মাসে শীতের প্রকোপ কমতেই এবার তাঁদের বাড়ি ফেরার পালা। কিন্তু আনন্দের বদলে গভীর আতংক তাড়া করে ফিরছে তাদের। পুলওয়ামায় জঙ্গী হানার পর জম্মু-কাশ্মীর, শ্রীনগর এলাকায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সমস্ত ইণ্টারনেট পরিষেবা। বাড়ির লোকদের সংগে যোগাযোগ হচ্ছে ফোনে। কিন্তু তাতেও শান্তি নেই জম্মু-কাশ্মীর, শ্রীনগর এলাকার এই বাসিন্দাদের। 

কয়েকদিন আগে পুলওয়ামায় জঙ্গী হানার ঘটনা থেকে বিগত কয়েক বছর ধরে চলে আসা লাগাতার বারুদের পোড়া গন্ধে এখন রসিদ আলি,মহম্মদ আলিরা আর শান্তিতে থাকতে পারছেন না। এরা চাইছেন, দিল্লির সরকার কেন কাশ্মীরিদের সংগে আলোচনায় বসছেন না? কেন একটা শিশু জন্মের পর থেকেই শুনছে তারা ভারতীয় নয়, আবার পাকিস্তানিও নয়। কেন তারা খেলার ছলে হাতে তুলে নিচ্ছে বন্দুক। আলি ভাইরা চাইছেন-বন্ধ হোক এসব। মাত্র আধ ঘন্টা আলোচনাতেই মিটতে পারে গত ৭০ বছর ধরে জিইয়ে রাখা কাশ্মীরি সমস্যা। আলি ভাইরা জানিয়েছেন, কিভাবে জঙ্গীরা সীমান্তের বাধা নিষেধ পেড়িয়ে ঢুকে পড়ছে - তাও ভেবে দেখা দরকার। তিনি জানিয়েছেন, কাশ্মীরের সমস্যাকে মেটানো হচ্ছে না। দরকার কাশ্মীরবাসীর সঙ্গে সরাসরি আলোচনা। কিন্তু সরকার সেই ধরনের কোন উদ্যোগ নিচ্ছে না।

0 Comments: