728x90 AdSpace

Latest News

Friday, 1 February 2019

ফের চাষি মৃত্যুকে ঘিরে চাঞ্চল্য কালনায়



ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,কালনাঃ শুক্রবার কালনা থানার বাঘনাপাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের চাঁদপুর গ্রাম থেকে এক চাষীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। স্থানীয় বাসিন্দারা ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে মৃত চাষির নাম কালীপদ দাস।বয়স ৮০। এদিন মৃতদেহটি কালনা মহকুমা হাসপাতালে ময়না তদন্ত হয়। মৃতের ছেলে সুজল দাস জানান বাবা চাষ করতে গিয়ে ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন । তাই বাবা ঋণের টাকা পরিশোধ না করতে পেরে মানসিক ভাবে অবসাদগ্রস্ত হয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন।


মৃতের ছেলে সুজল দাস আরও জানিয়েছেন, যে তাদের ১৫ বিঘা জমি রয়েছে। গতবছর বাবা আলু এবং ধান চাষ করতে গিয়ে ৫ লক্ষ টাকার ঋনগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন। ঋণের কিছু টাকা শোধ করতে পারলেও বাকিটা শোধ করতে গিয়ে হিমশিম খেতে হয়েছে বাবাকে। একদিকে ব্যাংকের তাগাদা অন্যদিকে অন্য মহাজনদের কাছ থেকে টাকা এনে চাষ করতে গিয়ে চরম সমস্যার মধ্যে পড়ে ছিলেন বাবা। এ বছরও আলু এবং ধানে চরম লোকসানের মধ্যে পড়তে হয়েছে। তাই ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পারায় আত্মসম্মানে লাগছিল বাবার। তাই বৃহস্পতিবার রাত আড়াইটে নাগাদ রান্নাঘরে গলায় গামছা দিয়ে আত্মঘাতী হন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা নাগাদ বাবা তাড়াতাড়ি খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েছিল তার ঘরে। রাতের দিকে বাবা বিছানা থেকে উঠে গিয়ে রান্না ঘরে আত্মঘাতী হন। প্রথমে মা অনেকক্ষণ খোঁজাখুঁজি করার পর রান্নাঘরে গিয়ে দেখেন ঝুলছেন তিনি। শুক্রবার সকালে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায় এবং ময়নাতদন্ত হয়। 


মর্মান্তিক এই ঘটনা ঘিরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।  স্থানীয় চাষীরা জানিয়েছেন, কালিপদ দাসের মত অনেকেই মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন চাষের লোকসানের কারণে। একদিকে আলু চাষে লোকসান, অন্যদিকে সবজি চাষে লোকসান - সবমিলিয়ে চাষিরা মারাত্মকভাবে আর্থিক সংকটের মুখে বলে দাবি স্থানীয় চাষীদের। স্থানীয় চাষীরা জানাচ্ছেন, সরকার থেকে আরো কম সুদে ঋণের ব্যবস্থা করলে অনেক চাষি মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচতে পারবেন।
ফের চাষি মৃত্যুকে ঘিরে চাঞ্চল্য কালনায়
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top