Headlines
Loading...
বর্ধমানবাসীর কাছ থেকে পণ্ডিত ধ্রুবতারা যোশী আজও প্রাপ্য সম্মান থেকে বঞ্চিত !

বর্ধমানবাসীর কাছ থেকে পণ্ডিত ধ্রুবতারা যোশী আজও প্রাপ্য সম্মান থেকে বঞ্চিত !


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ ১৯৬১ থেকে ১৯৯৩ প্রায় ৩২ বছর। এমনকি জীবনের শেষদিনটিও বর্ধমানে কাটিয়ে ছিলেন শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের প্রবাদপ্রতীম পুরুষ পণ্ডিত ধ্রুবতারা যোশী। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন নাগিনা মঞ্জিলেই তিনি ১৯৯৩ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত ধ্রুবতারা যোশীর প্রতি সম্মান জানাতে পূর্ব বর্ধমান জেলার সমস্ত শ্রেণীর প্রশাসন কোনো উদ্যোগই নেননি বলে জানালেন তাঁর অন্যতম শিষ্যা কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের অধ্যাপিকা তাপসী ঘোষ। তিনি জানিয়েছেন, তিনি যে বাড়িতে ছিলেন সেই নাগিনা মঞ্জিল এখন ধ্বংসাবশেষ। প্রশাসন মনে করলে সেখানেই ধ্রুবতারা যোশীর প্রতি সম্মান জানাতে কোনো সংগ্রহশালা বা গবেষণাগার তৈরী হতে পারত। আগামী রবিবার বর্ধমান রবীন্দ্রভবনে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে গৌড় মল্লার সংস্থা আয়োজিত ধ্রুবতারা সঙ্গীত উতসব ২০১৯। তৃতীয় বর্ষ এই উৎসবে ধ্রুবতারা যোশী স্মারক পুরষ্কার দেওয়া হচ্ছে পদ্মশ্রী প্রাপক বিশ্ববিখ্যাত সেতার বাদক ওস্তাদ শাহিদ পারভেজ খানকে। 

এই অনুষ্ঠানেই হাজির থাকবেন বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী পণ্ডিত ওংকার দাদকর, সরোদ বাদক পণ্ডিত অনিন্দ্য ব্যানার্জ্জী, বিশিষ্ট তবলাবাদক পণ্ডিত শুভঙ্কর ব্যানার্জী, অশোক মুখার্জ্জী, রূপক ভট্টাচার্য এবং বিশিষ্ট হারমোনিয়াম বাদক অনির্বাণ চক্রবর্তী। শুক্রবার এক সাংবাদিক বৈঠকে তাপসীদেবী জানিয়েছেন, ১৯৬১ সালে ধ্রুবতারা যোশী বর্ধমানে আসেন। এখানেই তিনি প্রথম সঙ্গীত একাডেমী গড়েন। তারপর বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে তিনি পদ্মজা নাইডু মিউজিক কলেজ তৈরী করেন। তিনিই প্রথম ওই কলেজের অধ্যক্ষ হন। তাপসীদেবী জানিয়েছেন, এর আগেও তাঁরা বর্ধমান পুরসভার কাছে বর্ধমানের যে কোনো একটি রাস্তার নাম ধ্রুবতারা যোশীর নামে করার আবেদন করেছিলেন। কিন্তু আজও তা পূরণ হয়নি। একইভাবে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছেও তাঁরা তাঁর নামে একটি চেয়ার প্রফেসর করার আবেদন জানিয়েছিলেন। আজও তা পূরণ হয়নি। 

এদিন সাংবাদিক বৈঠকে তিনি জানিয়েছেন, বর্তমান সময়কালের প্রথিতযশা সঙ্গীতশিল্পীরা ধ্রুবতারা যোশীকে যে সম্মান জানান বর্ধমানে তাঁর জীবনকাল কাটালেও কার্যত আজও তাঁকে ব্রাত্যই করে রেখেছেন বর্ধমানবাসী। তিনি জানিয়েছেন, ফের তাঁরা এই দাবীকে সামনে রেখেই কর্মসূচী নেবেন তাঁদের সংগঠনের পক্ষ থেকে।

0 Comments: