Headlines
Loading...
বহুজাতিক শপিং মলগুলি প্রতিদিন সাধারণ মানুষকে ঠকাচ্ছে , অভিযোগ পরিবেশকদের

বহুজাতিক শপিং মলগুলি প্রতিদিন সাধারণ মানুষকে ঠকাচ্ছে , অভিযোগ পরিবেশকদের



ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ প্রতিদিনই নিজেদের জ্ঞাতসারে বা অজ্ঞাতসারে বহুজাতিক বিভিন্ন কোম্পানীর হাতে সাধারণ মানুষ থেকে ব্যবসায়ীরা প্রতারিত হচ্ছেন বলে অভিযোগ তুললেন ওয়েষ্ট বেঙ্গল ডিষ্ট্রিবিউটর এ্যাসোসিয়েশন। রবিবার সংগঠনের ২৬তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বর্ধমানের টাউন হলে। তার আগে শনিবার সাংবাদিক বৈঠকে একগুচ্ছ বঞ্চনা ও প্রতারণার অভিযোগে সরব হলেন সংগঠনের সদস্যরা। 

সংগঠনের সহ সম্পাদক অভিজিত চ্যাটার্জ্জী, জেলা সভাপতি প্রিয়ত ভট্টাচার্য, সংগঠনের উপদেষ্টা শান্তিনাথ মুখার্জ্জী প্রমুখরা অভিযোগ করেছেন, গোটা ভারতবর্ষ জুড়েই সমস্ত রাজ্য ও জেলায় জেলায় এমনকি একেবারে প্রত্যন্ত গ্রামেও তাঁরা মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পৌঁছে দিচ্ছেন। কিন্তু তাঁরাই বর্তমানে সবথেকে সংকটজনক অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন। এদিন তাঁরা অভিযোগ করেছেন, প্রতিদিনই বিভিন্ন বহুমুখী বড় বড় সংস্থাগুলি নানান অফার বা ডিসকাউণ্টের ফাঁদে ফেলে সাধারণ মানুষের মন জয় করার চেষ্টা করছেন। কিন্তু এর মধ্যে দিয়ে কার্যত প্রতারণার শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ।  

শান্তিনাথবাবুরা অভিযোগ করেছেন, সত্যিই যদি সমস্ত ক্রেতাদের কাছে এই সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার বিষয় থাকত, তাহলে তাঁদের মাধ্যমেও সেই সুবিধা পৌঁছে দিতে কোম্পানীগুলি। কিন্তু এই সুবিধা দেওয়া হচ্ছে কেবলমাত্র বড় বড় শপিং মলেই। এরই পাশাপাশি এদিন পরিবেশক সংগঠনের কর্তারা অভিযোগ করেছেন,তাঁদের মাধ্যমেই বিভিন্ন শিল্পের প্রসার ঘটে। অথচ যেকোনো রকম সরকারী সুবিধা থেকে তাঁরা বঞ্চিত হয়ে রয়েছেন। গোটা রাজ্যে একাধিক কোম্পানীর কাছ থেকে বিভিন্ন নষ্ট দ্রব্যের জন্য ২৫ হাজার কোটি টাকা এবং বিভিন্নভাবে ১০ হাজার কোটি টাকা পাওনা রয়েছে তাঁদের। ফলে কোম্পানীগুলি লাভবান হলেও চুড়ান্ত ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন পরিবেশকরা। এরই পাশাপাশি ব্যাঙ্কের অসহযোগিতায় খুচরো পয়সার পাহাড় জমে উঠেছে তাঁদের ঘরে। অথচ তাঁরা কিছু করতে পারছেন না। সংগঠনের সহ সম্পাদক অভিজিত চ্যাটার্জ্জী জানিয়েছেন, রবিবার সাধারণ সভায় তাদের এই সমস্ত অভিযোগ, দাবি দাওয়া নিয়ে আলোচনা হবে।

0 Comments: