728x90 AdSpace

Latest News

Saturday, 3 November 2018

বেহাল রাস্তার কারণে ছাত্র মৃত্যু, রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ গ্রামবাসীদের, আক্রান্ত সংবাদ মাধ্যম

ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ লরির চাকায় লেগে ছিটকে আসা পাথরের টুকরোর আঘাতে এক ছাত্রের মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রের চেহারা নিলো বর্ধমানের পালিতপুর মোড় এলাকা। মৃতের নাম ভাস্কর ঘড়ুই (১২)। বাড়ি পালিতপুর গ্রামে। এই ঘটনায় বর্ধমান - কাটোয়া রোড অবরোধ করে দেয় উত্তেজিত জনতা। ব্যাপক ভাঙচুর করা হয় জেলা পরিষদের টোল সংগ্রহের জন্য অফিস ঘর। তছনছ করে দেওয়া হয় অফিসের বিল বই থেকে অন্যান্য কাগজপত্র। 

অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে পালিতপুর থেকে সিজেপাড়া যাওয়ার লিংক রোডের বেহাল অবস্থার কথা প্রশাসনকে জানিয়েও কোনো কাজ হয়নি। অথচ পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে নিয়মিত টোল আদায়ও করা হচ্ছে। কিন্তু বারবার জানিয়েও রাস্তা মেরামতের কোনো উদ্যোগই না নেওয়ায় ক্ষোভ জমেইছিল। গত বৃহস্পতিবার এই বেহাল রাস্তা দিয়ে একটি লরি যাবার সময় চাকায় লেগে একটি পাথরের টুকরো ছিটকে গিয়ে লাগে ভাস্করের বুকে। তাকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার পর প্রাথমিক চিকিত্সা করে তাকে শুক্রবার ছেড়ে দেওয়া হয়। এরপর শনিবার সকালে ফের সে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাকে নিয়ে এদিন সকালে বর্ধমান হাসপাতালে নিয়ে যাবার পথে পালিতপুর মোড়ে তার মৃত্যু হয়। এরপরই উত্তেজনা বাড়ে। মৃতদেহ রাস্তায় নামিয়ে রাখে রাস্তা অবরোধে সামিল হন গ্রামবাসীরা। 

উত্তেজিত জনতা পালিতপুর লিংক রোডে জেসিবি মেশিন দিয়ে কাটতে শুরু করলে কর্তব্যরত সাংবাদিকরা তার ছবি তুলতে যায়। সেই সময় স্থানীয় জনতা সাংবাদিকদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। জনতার ছোড়া পাথরে চোখের নিচে ফেটে যায় চিত্র সাংবাদিক অপূর্ব ঘোষের। সাংবাদিক জ্যোতির্ময় ব্যানার্জিকেও বেধড়ক মারধর করে অবরোধকারীরা। একইভাবে কমবেশি আহত হন আরও কয়েকজন সাংবাদিক ও চিত্র সাংবাদিক। অথচ পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকলেও উত্তেজিত জনতাকে সামাল দিতে পারেনি। এদিকে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা দেখা দেওয়ায় বর্ধমান থানা থেকে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পরে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।
no image
  • Title : বেহাল রাস্তার কারণে ছাত্র মৃত্যু, রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ গ্রামবাসীদের, আক্রান্ত সংবাদ মাধ্যম
  • Posted by :
  • Date : November 03, 2018
  • Labels :
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top