728x90 AdSpace

Latest News

Friday, 2 November 2018

বর্ধমানে কালীপুজোর চাঁদার জুলুমবাজি, গাড়ি চালককে মারধোর, রাস্তা অবরোধ


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ কালীপুজোর চাঁদার জুলুমবাজী অব্যাহত। পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রামের পর এবার বর্ধমান শহরে দাবী মত চাঁদা না দেওয়ায় বেধড়ক মারধর করা হল গাড়ি চালককে। ভাঙচুরও করা হল গাড়িতে। এই ঘটনার প্রতিবাদে রাস্তায় গাড়ি রেখে পথ অবরোধ করলেন চালকরা। শুক্রবার সকালে এই ঘটনায় দীর্ঘক্ষণ বর্ধমান আরামবাগ রোডের তেলিপুকুরে অবরোধ হওয়ায় চরম যানজটের সৃষ্টি হয়। বাস,লরি সহ বিভিন্ন যানবাহন আটকে পড়ে। যানজটের জেরে তেলিপুকুরে ২ নম্বর জাতীয় সড়কের আপ্রচ রোডও অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। ফলে কলকাতাগামী সরকারী বাস ও স্কুল বাসগুলিও আটকে পড়ে।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, এদিন সকালে তেলিপুকুরে একদল যুবক একটি ক্যান্টারকে আটকে চালকের কাছে পাঁচশো টাকা কালীপুজোর চাঁদা দাবী করে বলে অভিযোগ চালকদের। ওই ক্যান্টার চালক দাবীমত পাঁচশো টাকার পরিবর্তে পঞ্চাশ টাকা দিলে চালককে গাড়ি থেকে নামিয়ে ব্যাপক মারধর করা হয় ও গাড়ির কাঁচ ভেঙে দেওয়া হয়। তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন অন্যান্য বাস ও লরির চালকরা। তাঁরাই জখম চালককে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। এরপর ক্ষুদ্ধ অন্যান্য গাড়ির চালকরা মূলত বাস ও লরির চালকরা ক্যান্টারটিকে রাস্তার মাঝখানে দাঁড়িয়ে করিয়ে রেখে অবরোধ শুরু করে।

প্রথমে বর্ধমান থানার পুলিশ গেলেও অবরোধকারীরা অবরোধ তুলতে রাজি হয় নি। শেষে বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে অবরোধকারী চালকদের বুঝিয়ে অবরোধ তোলে। উল্লেখ্য, সপ্তাহ খানেক আগে দাবীমত কালীপুজোর চাঁদা না দেওয়ায় আউশগ্রামের গুসকরা-অভিরামপুর রোডে লরি চালকের মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়। জেলার বিভিন্ন রাস্তার পাশাপাশি চাঁদার জুলুম থেকে রেহাই নেই জাতীয় সড়কেও। বর্ধমান বোলপুর এনএইচ ২ বির তালিত রেলগেটের কাছেও একদল যুবক প্রতিদিন লাঠি হাতে গাড়ি থামিয়ে চাঁদার জুলুমবাজী করছে বলে অভিযোগ। বেপরোয়া চাঁদার জুলুমবাজী আটকাতে পুলিশ প্রশাসন সক্রিয় নয় বলে অভিযোগ বাসিন্দা থেকে চালক সকলেরই।
বর্ধমানে কালীপুজোর চাঁদার জুলুমবাজি, গাড়ি চালককে মারধোর, রাস্তা অবরোধ
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top