728x90 AdSpace

Latest News

Monday, 5 November 2018

পূর্বস্থলী থানার লকাপ থেকে চম্পট দেওয়া আসামি শেষ পর্যন্ত ধরা পড়ল


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,কালনাঃ পূর্বস্থলী থানার লকাপ থেকে চম্পট দেওয়া আসামি শেষ পর্যন্ত নিজেই পুলিশের হাতে ধরা দিল। যদিও সোমবার কালনা আদালতে ধৃতকে পেশ করার সময় ধৃত লাল মহম্মদ শাহজি জানায়, সুযোগ বুঝে নেশা করতে বাইরে গিয়েছিল সে, পরে নিজেই ফিরে আসে থানায়। যদিও এক পুলিশ অফিসার জানান, রীতিমত জাল বিছিয়েই থানা থেকে পলাতক চোরকে ধরা হয়েছে। এদিন আদালতে পেশ করার পর ধৃতের জামিন নামঞ্জুর হয়ে যায়।

উল্লেখ্য, শনিবার রাত ১১টা নাগাদ পূর্বস্থলী থানার যজ্ঞেশ্বর গ্রামের লালচাঁদ মল্লিকের বাড়িতে চুরি করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়ে যায় পাড়ার যুবক লাল মহম্মদ শাহজি। খবর পেয়ে ছুটে গিয়ে পুলিস চোর এবং গৃহকর্তা দু’পক্ষকেই ভ্যানে চাপিয়ে থানায় নিয়ে আসে। গৃহকর্তা থানায় লিখিত অভিযোগ লিপিবদ্ধ করে বাড়ি চলে যান। অন্যদিকে থানার কর্তব্যরত পুলিশ অফিসার চোরকে লকাপের পাশে বসিয়ে নিজে চেয়ারে বসে তন্দ্রাচ্ছন্ন হয়ে পড়েন। সেই সুযোগে সেখান থেকে হাওয়া হয়ে যায় চোর। থানায় লাগানো সিসি ক্যামেরায় ধৃতের পালানোর ছবিও ধরা পড়েছে বলে জানা গেছে। 

পূর্ব বর্ধমান জেলার পুলিস সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায় জানান, পূর্বস্থলী থানা থেকে একজন ধৃত পালিয়েছে। এনিয়ে উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কারও গাফিলতি থাকলে তার বিরুদ্ধে প্রশাসনিক পদক্ষেপ নেওয়া হবে। সোমবার কালনা আদালত চত্বরে দাঁড়িয়ে অভিযুক্ত লাল মহম্মদ শাহজি পূর্বস্থলী থানা থেকে পালানোর কথা স্বীকার করে। সে জানায়, গঞ্জিকা সেবনের জন্য থানা থেকে পালিয়েছিল সে । তারপর পুলিশকে সে নিজেই ধরা দিয়েছে। এখানে পুলিশের কোন বাহাদুরি নেই। পূর্বস্থলী থানার পুলিশ চুরি ও থানা থেকে পালানোর জন্য ধৃতের বিরুদ্ধে দুটি পৃথক মামলা দায়ের করেছে।
 পূর্বস্থলী থানার লকাপ থেকে চম্পট দেওয়া আসামি শেষ পর্যন্ত ধরা পড়ল
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top