728x90 AdSpace

Latest News

Friday, 31 August 2018

স্ত্রীকে পরপুরুষের সঙ্গে বিছানায় দেখে প্রেমিককে ধারাল অস্ত্রের কোপ স্বামীর, মৃত প্রেমিক,জখম স্ত্রী


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব মেদিনীপুরঃ বিয়ের পর মাত্র কয়েক মাস কেটেছে। এরই মধ্যে প্রতিবেশী যুবকের সঙ্গে প্রণয়ের সম্পর্কে জড়িয়েছে স্ত্রী। গভীর রাতে স্ত্রীকে পরপুরুষের সঙ্গে দেখে মাথা ঠিক রাখতে পারেনি যুবক। ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্ত্রী ও তাঁর প্রেমিককে কোপাল যুবকটি। এই ঘটনায় প্রেমিক যুবকের ঘটনাস্থলে মৃত্যু হলেও গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে স্ত্রী। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের ভুপতিনগর থানার মহিষদা গ্রামে। মৃত যুবকের নাম নাড়ুগোপাল জানা বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। 

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মহিষদা গ্রামের বাসিন্দা বিশ্বনাথ হাতির সঙ্গে গত ৪ মাস আগেই বিয়ে হয় ভূপতিনগরের ঘোলবাগদা গ্রামের রিঙ্কির। বিয়ের পরেই কর্মসূত্রে কলকাতায় কাজে চলে যায় বিশ্বনাথ। ইতিমধ্যে গ্রামেরই যুবক তিন মেয়ের বাবা নাড়ুগোপালের সঙ্গে অন্তরঙ্গতা বাড়ে রিঙ্কির। গভীর রাতে সবার নজর এড়িয়ে রিঙ্কির বাড়িতে যাতায়াত শুরু করে নাড়ুগোপাল। ইতিমধ্যে বিশ্বনাথের বাবার শরীর অসুস্থ হয়ে পড়ে। এই খবর শুনে কাউকে কিছু না জানিয়েই বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ি ফিরে আসে বিশ্বনাথ।
 
আর বাড়িতে গিয়েই জানালা থেকে স্ত্রীকে নাড়ুগোপালের সঙ্গে আপত্তিজনক অবস্থায় দেখতে পায় সে। এই ঘটনার পরেই মাথায় খুন চেপে যায় বিশ্বনাথের। তাঁর আওয়াজ পেয়ে নাড়ুগোপাল পালাতে চেষ্টা করলে বিশ্বনাথ একটি শিল নোড়া দিয়ে তাঁর মাথায় সজোরে আঘাত করে। এরপর মৃত্যু নিশ্চিত করতে ধারালো কাটারি দিয়ে তাঁকে একাধিকবার কোপায় বিশ্বনাথ। এরপরেই স্ত্রীর মাথাতেও কাটারির কোপ মারে। এরপরেই গ্রামবাসীরা এসে বিশ্বনাথকে আটকে রাখে।

খবর পেয়ে ভুপতিনগর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে বিশ্বনাথকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে। সেই সঙ্গে গুরুতর আহত অবস্থায় রিঙ্কিকে প্রথমে কাঁথি হাসপাতাল এবং পরে তাঁকে তমলুক জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
স্ত্রীকে পরপুরুষের সঙ্গে বিছানায় দেখে প্রেমিককে ধারাল অস্ত্রের কোপ স্বামীর, মৃত প্রেমিক,জখম স্ত্রী
  • Title : স্ত্রীকে পরপুরুষের সঙ্গে বিছানায় দেখে প্রেমিককে ধারাল অস্ত্রের কোপ স্বামীর, মৃত প্রেমিক,জখম স্ত্রী
  • Posted by :
  • Date : August 31, 2018
  • Labels :
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top