728x90 AdSpace

Latest News

Friday, 13 July 2018

এক কিশোরির অস্বাভাবিক মৃত্যুকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল বীরভূমের মল্লারপুরে



পিয়ালী দাস বীরভূমঃ এক কিশোরির অস্বাভাবিক মৃত্যুকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল বীরভূমের মল্লারপুরে। মৃতের নাম সোনালি লেট (১৫)। মৃতার পরিবারের লোকেদের দাবী, মেয়েকে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে। যদিও মল্লারপুর থানায় জমা করা অভিযোগ পত্রে ধর্ষণের কথা উল্লেখ করা হয়নি পরিবারের তরফে। পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে দুজনকে আটক করেছে জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে পুলিশ।

জানা গেছে, মৃত কিশোরীর বাড়ি বাহিনা এলাকায়। বসত বাড়িতে কোন বাথরুম না থাকায় পাশের বাহিনা পুকুর পাড় এলাকায় তার পরিবার থেকে নতুন একটি বাড়ি তৈরি করছে। সেই বাড়িতে বাথরুম এবং অন্যান্য সুযোগ সুবিধা রয়েছে। সেই নতুন বাড়িতেই প্রতিদিন স্নান করতে যেত তাদের মেয়ে। গতকালও স্নান করতে যায় সে। কিন্তু বহুক্ষণ ধরে তাদের মেয়ে ফিরে না আসায় সেই বাড়িতেই খোঁজ করতে যায় বাড়ির লোকজন। নতুন বাড়িতে গিয়ে মেয়ের দাদা ও মামা দেখেন  সামনের দরজা বন্ধ আছে। এরপর পিছনের দরজা দিয়ে বাড়িতে প্রবেশ করে এবং তারা দেখেন ঘরের মধ্যে পরে আছে সোনালি। পাশে একটি অ্যাসিডের শিশি পড়ে আছে। কি ঘটেছে কিছু বুঝে ওঠার আগেই মেয়েটিকে নিয়ে প্রথমে মল্লারপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং পরে রামপুরহাট হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক মেয়েটিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পরিবারের দাবী, যে তাদের মেয়েকে প্রথমে ধর্ষন করে তারপর খুন করা হয়েছে এবং সুসাইড দেখাতে অ্যাসিডের শিশি ফেলে রাখা হয়েছে। ঘটনায় মল্লারপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে পরিবার। যদিও, পরিবারের ধর্ষণের মতো গুরুতর অভিযোগ থাকলেও অভিযোগ পত্রে ধর্ষনের কথা লেখেনি পরিবারের লোকেরা। শুক্রবার রামপুরহাট মহকুমা হাসপাতালে ময়নাতদন্ত করা হয় মৃতদেহের।


তবে এই ঘটনার পিছনে ধর্ষণ করে খুন, নাকি আত্মহত্যা তা এখনও পর্যন্ত পরিস্কার নয়, ময়নাতদন্তের পরই উঠে আসতে পারে আসল ঘটনা। এদিকে যে বাড়িতে ঘটনাটি ঘটেছে সেই বাড়িটিকে সিল করে করে দিয়েছে মল্লারপুর থানার পুলিশ।
এক কিশোরির অস্বাভাবিক মৃত্যুকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়াল বীরভূমের মল্লারপুরে
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top