728x90 AdSpace

Latest News

Wednesday, 11 July 2018

কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের অর্থ তছরুপ ঘটনায় বীরভূমে গ্রেফতার ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা রেবতী চরণ ভট্টাচার্য



পিয়ালী দাস,বীরভূমঃ বীরভূম জেলা কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের আর্থিক তছরুপ ঘটনায় গ্রেফতার হলেন ফরওয়ার্ড ব্লকের রাজ্য কমিটির সদস্য রেবতী চরণ ভট্টাচার্য। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, এক ব্যবসায়ীকে তিনি নিয়মবহির্ভূতভাবে কয়েক লক্ষ টাকা লোন পাইয়ে দিয়েছিলেন। সেই লোন ব্যবসায়ী ব্যাংকে পরিশোধ করেননি। সোমবার গভীর রাতে সিউড়ি থানার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। ধৃতকে সিউড়ি আদালতে তোলা হলে বিচারক দু দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন । 



রেবতী চরণ ভট্টাচার্য ১৯৮৬ সাল থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত বীরভূম জেলা কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের পরিচালন সমিতির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। এর মধ্যে ২০০৪ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত তিনি এককভাবে সমবায় ব্যাংকের পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন। বর্তমানে তিনি ফরওয়ার্ড ব্লকের বীরভূম জেলা কমিটির সভাপতি এবং রাজ্য সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য । পাশাপাশি বাম আমলে তিনি বীরভূম জেলা পরিষদের সহ-সভাপতি এবং অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিগমের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। 

অভিযোগ, তিনি যখন বীরভূম জেলা কেন্দ্রীয় সমবায় পরিচালন সমিতির একক দায়িত্বে ছিলেন, সেই সময়ই তিনি কৃষিঋণ বাদে যে সমস্ত লোন ব্যাংক থেকে দেওয়া হয়েছিল তার পুরোটাই তৎকালীন চেয়ারম্যানের সুপারিশে অনৈতিকভাবে পাইয়ে দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ। সেই সময় থেকেই ব্যাংক আর্থিক সমস্যায় ভুগতে থাকে। ২০১৪ সালের ১৬ মে বন্ধ হয়ে যায় ব্যাংক, রিজার্ভ ব্যাংক বাতিল করে দেয় লাইসেন্স। বন্ধ হয়ে যায় ১৭ টি শাখা। সমস্যায় পড়েন জেলার বিভিন্ন প্রান্তের প্রায় ৩ লক্ষ গ্রাহক। 

এরপর তৃণমূল সরকার রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর সমবায় ব্যাঙ্ক পুনুরুজ্জিবনে উদ্যোগী হয়। বছর দেড়েক বন্ধ থাকার পর রাজ্য সরকার, নাবার্ড এবং কিছুটা কেন্দ্র সরকার মিলে ১১৯ কোটি টাকার আর্থিক সাহায্য দেয় এবং কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংক তার বাতিল হওয়া লাইসেন্স ফিরে পায় রিজার্ভ ব্যাংকের কাছ থেকে। অনুদানের সিংহভাগ টাকাই রাজ্য সরকার প্রদান করে। ইতিমধ্যেই বীরভূম জেলা কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নেয় নুরুল ইসলাম। তারপর থেকেই ব্যাংকের অনাদায়ী লোন আদায়ের কাজ শুরু করে। প্রায় ৭০ কোটি টাকার মতো ব্যাংক লোন আদায় করে। ব্যাংকের ৬ জন কর্মী বিরুদ্ধে অনৈতিকভাবে লোন পাইয়ে দেওয়ার ঘটনায় মামলা করা হয়। কিছু ঋণখেলাপিদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে নিলাম করা হয় । ব্যাংক ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করে। 

গত১৮ এপ্রিল বীরভূম জেলা কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের পক্ষ থেকে রেবতী চরণ ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। সোমবার রাতে মহঃ বাজারের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে সিউড়ি থানার পুলিশ। ব্যাংক ও আদালত সূত্রে জানা গিয়েছে নলহাটি এলাকার বাসিন্দা আজিজুল হক নামে এক ব্যবসায়ী কে ২০০৫ সালে প্রথমে ৫ লক্ষ টাকা এবং ১ বছরের মধ্যে মোট ৬০ লক্ষ টাকা লোন দেওয়া হয়। তার জন্য কুড়ি লক্ষ টাকার মূল্যের সম্পত্তি বন্ধক হিসেবে রাখা হয় ব্যাংকের কাছে। সেই ব্যবসায়ীর অনাদায়ী লোন বর্তমানে সুদে-আসলে প্রায় দেড় কোটি টাকার মতো। ব্যাংকের পক্ষ থেকে ওই ব্যবসায়ীকে বার বার লোন শোধের কথা বলা হলেও তিনি কোনো গুরুত্ব দেননি বলে অভিযোগ। 

বীরভূম জেলা কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের বর্তমান পরিচালনা সমিতির চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম জানান, ২০০৪ সাল থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত রেবতী চরণ ভট্টাচার্য এককভাবে ব্যাংক পরিচালনা করেছিলেন। সেই সময় বহু ব্যবসায়ীকে অনৈতিকভাবে লোন পাইয়ে দিয়েছিলেন। পরবর্তী সময়ে তার এই বেনিয়মের ফলে ব্যাংক বন্ধ হয়ে যায়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সহায়তায় ব্যাংক স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরে পেয়েছে। তিনি জানান, বিভিন্ন কাগজপত্র পরীক্ষা করে দেখতে পাওয়া গেছে নিয়মবহির্ভূতভাবে রেবতী বাবু লোন বহু জনকে লোণ পাইয়ে দিয়েছিলেন। তাই বাধ্য হয়ে উনার বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়েছে। প্রায় ২০০০ লোন গ্রহীতার কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। নথিপত্র জাল করে সেই লোন তখন দেওয়া হয়েছিল । তার পরিমাণ প্রায় ১৪ কোটি টাকা । 

ব্যাংকের আইনজীবী কাজল চ্যাটার্জী জানান, ধৃত ব্যক্তিকে আদালতে তোলা হলে বিচারক সৌম্য চ্যাটার্জী ২ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী ১৩ তারিখ ফের আদালতে হাজির করানো হবে অভিযুক্তকে। এদিকে রেবতী চরণ ভট্টাচার্য তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, কোন লোন দেওয়ার ব্যাপার থাকলে সেখানে ব্যাংকের আধিকারিকদের সমস্ত দায়িত্ব থাকে। তাঁর একার সুপারিশে কাউকে লোন দেওয়া হয়নি। তাকে বর্তমান পরিচালন সমিতি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ফাঁসিয়েছে।
কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের অর্থ তছরুপ ঘটনায় বীরভূমে গ্রেফতার ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা রেবতী চরণ ভট্টাচার্য
  • Title : কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের অর্থ তছরুপ ঘটনায় বীরভূমে গ্রেফতার ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা রেবতী চরণ ভট্টাচার্য
  • Posted by :
  • Date : July 11, 2018
  • Labels :
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top