728x90 AdSpace

Latest News

Saturday, 28 July 2018

বর্ধমান আদালত পরিদর্শনে হাইকোর্টের দুই বিচারপতি


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমানঃ জেলা ভাগ হলেও এখনও পশ্চিম বর্ধমান জেলার জন্য আলাদা কোনো জেলা আদালত গঠন হয়নি। রবিবার দুর্গাপুরে আদালত ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করতে আসছেন কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি জ্যোর্তিময় ভট্টাচার্য। আর তার আগেই হাইকোর্টের দুই বিচারপতি – জোনাল জজ সঞ্জীব বন্দোপাধ্যায় এবং অতিরিক্ত জোনাল জজ সব্যসাচী ভট্টাচার্য শনিবার বর্ধমান আদালত ঘুরে গেলেন।

এদিন বিচারপতিদ্বয় বর্ধমান আদালতের সমস্ত বিচারপতি, বারের প্রতিনিধি ছাড়াও জেলাশাসক এবং জেলা পুলিশ সুপারের সঙ্গেও বৈঠক করেন। বর্ধমান আদালতের আইনজীবীদের সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরেই বর্ধমান আদালতে বিচারপ্রার্থীদের জন্য আলাদা কোনো বসার জায়গা নেই। নেই শৌচাগারও । সম্প্রতি বর্ধমান আদালত চত্বরে আইনজীবীদের বসার ঘর তৈরী নিয়েও ব্যাপক বিতর্ক সৃষ্টি হওয়ায় রাজ্য সরকারের নির্দেশে ওই ঘর তৈরী বন্ধ করে দেওয়া হয়। তা নিয়ে রীতিমত চাপান উতোরও শুরু হয়। এদিন আইনজীবীদের এই বসার ঘর তৈরী নিয়ে স্থানীয় তৃণমুল কাউন্সিলার প্রচুর লোকজন নিয়ে আদালতে হাজির হলে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়। পুলিশ তাদের হঠিয়ে দেয়।

কাউন্সিলার শিখা সেনগুপ্ত অভিযোগ করেছেন, পুরসভাকে না জানিয়েই আইনিজীবীরা ঘর তৈরী করেছেন। এদিন তিনি বিচারপতিদের সংগে দেখা করার চেষ্টাও করেন। কিন্তু বিচারকরা দেখাই করেননি।

বৈঠক শেষে বর্ধমান বার এসোসিয়েশনের সম্পাদক সদন তা জানিয়েছেন, বিচারপতিরা তাদের আবেদন শুনেছেন। তারা জানিয়েছেন, আইনজীবী এবং বিচারপ্রার্থীদের জন্য খুব শীঘ্রই স্থায়ী ব্যবস্থা করা হবে। কাউন্সিলরের অভিযোগ সম্পর্কে সদন তা জানিয়েছেন, পুরসভার অনুমতি ছাড়াই আদালত চত্বরে অবৈধভাবে অনেক নির্মাণ হয়েছে। আদালতের ব্যাপারে কাউন্সিলারের চোখ না দেওয়াই ভালো। অন্যদিকে, বর্ধমান আদালতের সামনে পুকুর পাড়ে রয়েছে বেশ কিছু ব্যবসায়ী থেকে বস্তিবাসীও। উচ্ছেদের আতংক দেখা দিয়েছে তাদের মধ্যেও। কারণ এদিনের বৈঠকের পর আদালতের সীমানা ঘিরে দেবার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।
বর্ধমান আদালত পরিদর্শনে হাইকোর্টের দুই বিচারপতি
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top