728x90 AdSpace

Latest News

Thursday, 12 July 2018

গৃহবধূকে গলায় দড়ির ফাঁস দিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগ শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে



পিয়ালী দাস, বীরভূমঃ গৃহবধূকে গলায় দড়ির ফাঁস দিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগ উঠল শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন মেয়ের শ্বশুর বাড়িতে পৌঁছলে তাদেরও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। পুলিশ রাতের দিকে মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। তবে এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের মল্লারপুর থানার সোঁজ গ্রামে। মৃত গৃহবধূর নাম মৌটুসী মণ্ডল (২৩)। বাপের বাড়ি মুরারই থানার বড়ুয়া গ্রামে। জানা গেছে, ২০১৫ সালের এপ্রিল মাসে সোঁজ গ্রামের সুমন মণ্ডলের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। সুমন পেশায় গৃহশিক্ষক। তাদের বছর দুয়েকের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। 

মেয়ের বাড়ির পরিবারের অভিযোগ, মেয়ে(মৌটুসী) অসুস্থ থাকায় তার চিকিৎসার জন্য বাপের বাড়ি থেকে টাকা পয়সা আনার জন্য প্রায়শই চাপ দিত। এই নিয়ে বিয়ের পর থেকেই শ্বশুর বাড়িতে অশান্তি হত। মাঝেমধ্যে মেয়ের উপর মানসিক ও শারীরিক অত্যাচার করত স্বামী, শ্বশুর প্রভাত মণ্ডল, শাশুড়ি অনিতা মন্ডল। জানা গেছে, বুধবার বিকেলে প্রতিবেশীদের কাছ থেকে ফোনে খবর পেয়ে মৌটুসী মণ্ডলের দাদু, মা, বাবা ও ভাই সোমনাথ ঘোষ সোঁজ গ্রামে যায়। বাবা, মা, ভাই সেখানে গাড়ি থেকে নেমে কিভাবে মেয়ের মৃত্যু হল জিজ্ঞাসা করতেই ছেলের কাকা, জ্যাঠারা মারধর শুরু করে তাদেরকে। দাদু ভগীরথ ঘোষের হাতে আঘাত লাগে । ভাই সোমনাথের চোখের আঘাত গুরুতর। খবর পেয়ে সন্ধ্যার দিকে মল্লারপুর থানার পুলিশ গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে আনে। মন্টু ঘোষ ও সোমনাথের চিকিৎসা করানো হয়েছে মল্লারপুর ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে।এদিকে ঘটনার পর থেকে স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ি পলাতক। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।
গৃহবধূকে গলায় দড়ির ফাঁস দিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগ শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top