728x90 AdSpace

Latest News

Sunday, 29 July 2018

বিদ্যাসাগরের স্মৃতি বিজড়িত কালনার পুরনো হাসপাতাল ভবন আজ উদাসিনতার চরম নিদর্শন


পল্লব ঘোষ,কালনাঃ আজ ২৯ জুলাই। ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের ১২৭ তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৮৯১ সালের এই দিনে মহান সমাজসংস্কারক,মাতৃভক্ত, পণ্ডিত মানুষটি ইহলোক ত্যাগ করেছিলেন। তারপর গঙ্গা দিয়ে বহু জল বয়ে গেছে। আজ আমরা, বাঙ্গালীরা যদি প্রশ্ন করি - তুমি যদি না থাকতে তাহলে কি হত? আমরা বর্ণপরিচয়- এর সঙ্গে পরিচিত হতাম না। বিধবা বিবাহের প্রচলন হত না। বাল্য বিবাহ বন্ধ হত না। নারী শিক্ষা আজও হত না। দয়ার সাগর কি, জানাই হত না। মাতৃ ভক্তির অর্থই বুঝতাম না। 

তাই মহান এই ব্যাক্তিকে কেন্দ্র করে এই বিশেষ প্রতিবেদন লেখার আগে একটা কথা অবশ্যই বলতে হয়, মৃত্যু মানুষের হয়, ঈশ্বরের নয়।

বিদ্যাসগর একবার তাঁর এক বিশিষ্ট বন্ধু কালনা নিবাসী তারানাথ তর্ক বাচস্পতির সঙ্গে দেখা করার উদ্দ্যেশে কলকাতা থেকে পায়ে হেঁটে যাত্রা শুরু করেন। সেকালে যাত্রা পথ সুগম ছিল না। তবু গন্তব্য কয়েকদিনের জেনেও জরুরি প্রয়োজনে কালনায় আসছিলেন তিনি।রাস্তায় তাঁর চোখে পড়ে এক মুমূর্ষু কলেরা রোগীকে। মুহূর্তকাল অপেক্ষা না করে বিদ্যাসাগর সেই ব্যাক্তিকে কাঁধে তুলে নিয়েই আসতে থাকেন কালনার দিকে। তিনি জানতেন এই রোগীকে বাঁচাতে গেলে বড় হাসপাতালে নিয়ে যেতেই হবে। যথারীতি কালনা পৌঁছে সোজা জাপটে অবস্থিত তখনকার হাসপাতালে ভর্তি করেন রোগীকে। জাপটের সেই হাসপাতাল আজ অবহেলায়,উদাসিনতায় ভগ্নপ্রায়। এমনকি অতি আশ্চর্যের বিষয়, বর্তমানে পূর্ব বর্ধমান জেলার কটা মানুষ জানেন যে স্বয়ং ঈশ্বরচন্দ্র পায়ে হেঁটে এই জেলার কালনায় এসেছিলেন। যদিও এই ঘটনার কথা একসময় প্রাথমিকের পাঠ্য পুস্তকের বিষয়বস্তু ছিল। আজ তারও অবলুপ্তি ঘটেছে। বর্ণপরিচয়ের মতই।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, তারানাথ তর্ক বাচস্পতি যে শুধু পণ্ডিত মানুষ ছিলেন তাই নয়, তৎকালীন ব্যবসা বানিজ্যেও পারদর্শী মানুষ ছিলেন বলে জানতে পারা যায়। কালনা শহরের এ হেন মানুষটি বিদ্যাসগরের বন্ধু মানুষ ছিলেন। আর এমন একজন পণ্ডিত মানুষকে কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজে অধ্যাপনা করার নিবেদন নিয়ে কলকাতা থেকে সুদূর কালনা পায়ে হেঁটে এসেছিলেন স্বয়ং বিদ্যাসাগর। তবু আজ অবধি এই রাজ্যের কোন সরকার এই মহান মানুষটির স্মৃতি বিজরিত প্রাচীন হাসপাতাল ভবনটির সংস্কার বা সংরক্ষনের বিষয়ে ভাবনা চিন্তা করেনি। আজও এই ভবন নিদারুণ অবহেলায়, যে কোন দিন ভেঙ্গে পরার আশঙ্কায় দাঁড়িয়ে আছে সকলের চোখের সামনে।
বিদ্যাসাগরের স্মৃতি বিজড়িত কালনার পুরনো হাসপাতাল ভবন আজ উদাসিনতার চরম নিদর্শন
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top