728x90 AdSpace

Latest News

Monday, 2 July 2018

বর্ধমানে কলেজে ভর্তিতে শাসক দলের ছাত্র নেতাদের বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ




ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমানঃ কলেজে ভর্তি হতে গেলে টাকা দিতে হবে শাসক দলের ছাত্র নেতাদের, ছাত্র ছাত্রীদের এমনই অভিযোগে সরগরম গোটা রাজ্য। শাসকদলের নেতাদের বিরুদ্ধে টাকা নিয়ে ভর্তির অভিযোগ উঠেছে বিভিন্ন কলেজে। পূর্ব বর্ধমান জেলার কলেজগুলিও বাদ গেল না এমন অভিযোগ থেকে। অভিযোগ উঠেছে, বর্ধমানের বিবেকানন্দ কলেজে পাস কোর্সের জন্য ১০ হাজার টাকা এবং অনার্সের জন্য ২০ হাজার টাকা চাওয়া হচ্ছে ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে। শুধু এটাই নয়, বিভিন্ন কলেজে বিভিন্ন টাকা দাবী করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছে এসএফআইও।

এসএফআই-এর পূর্ব বর্ধমান জেলা সম্পাদক অনির্বাণ রায় চৌধুরী জানিয়েছেন, গত কয়েকবছর ধরেই ছাত্র ভর্তির নামে গুণ্ডামি, দাদাগিরী এবং তোলাবাজির অভিযোগ চলছেই। এব্যাপারে তাঁরা বারবার বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষেরও দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। কিন্তু তাতে কোনো সুফল মেলেনি। তিনি জানান, এবছর কলেজে ভর্তি নিয়ে চুড়ান্ত অরাজকতা দেখা দিয়েছে। যোগ্য ছাত্রছাত্রীদের বাদ দিয়ে কেবলমাত্র টাকার বিনিময়ে ভর্তি চলছে কলেজে কলেজে। চলছে রীতিমত তোলাবাজি। এরই প্রতিবাদে তাঁরা আগামী ৯ জুলাই বর্ধমানের রাজপথে প্রতিবাদ মিছিলের ডাক দিয়েছেন।


এদিকে, বর্ধমানের বাসিন্দা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ছাত্র অভিযোগ করেছেন, তিনি বাংলায় অনার্স পড়ার জন্য বর্ধমানের বিবেকানন্দ কলেজে যান। সেই সময় এক নেতা জানান, পাস কোর্সে ভর্তির জন্য ১০ হাজার টাকা এবং অনার্সে ভর্তির জন্য ২০ হাজার টাকা দিতে হবে তাকে। একইভাবে তার এক বন্ধুর কাছ থেকেও এইভাবে টাকা চাওয়া হয়। দানিশ জানিয়েছে, তার বাবা লরীর চালক। তার পক্ষে এত টাকা দেওয়া সম্ভব নয়। এমতবস্থায় আদৌ সে কলেজে পড়তে পারবে কিনা তা নিয়েই দুশ্চিন্তায় রয়েছে। দানিশ জানিয়েছে, বর্ধমানের রাজ কলেজে সে অনার্সের জন্য আবেদন করেছিল। কিন্তু সে অনার্স পায়নি। এব্যাপারে বারবার কলেজের অধ্যক্ষের সঙ্গে দেখা করতে চাইলে তাকে কলেজে ঢুকতেই দেওয়া হয়নি। শুধু দানিশই নয়, এই ধরণের লাগাতার অভিযোগ উঠছে বলে দাবী করেছেন এসএফআই জেলা সম্পাদক।

অন্যদিকে, এই অভিযোগ সম্পর্কে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের পূর্ব বর্ধমান জেলা সভাপতি বাপ্পাদিত্য ব্যানার্জ্জী জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই তৃণমূল ছাত্র পরিষদের রাজ্য নেতৃত্ব এবং তৃণমূলের সর্বোচ্চ নেতৃত্বের পক্ষ থেকে কলেজে ভর্তি নিয়ে কোনোরকম তোলাবাজি বরদাস্ত করা হবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তারপরেও কেউ যদি এই কাজ করে তাহলে তার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এরই পাশাপাশি পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে কলেজে ভর্তি নিয়ে তোলাবাজির অভিযোগ জানাতে ব্যানার লাগিয়ে প্রচার চালানোর উদ্যোগও নেওয়া হয়েছে।প্রচার চালানো হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়াতেও।
বর্ধমানে কলেজে ভর্তিতে শাসক দলের ছাত্র নেতাদের বিরুদ্ধে তোলাবাজির অভিযোগ
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top