728x90 AdSpace

Latest News

Wednesday, 11 July 2018

নাবালিকার বিয়ে রদ করল বর্ধমান জেলা প্রশাসন



ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমানঃ বাড়িতে বিয়ের প্রস্তুতি চলছিলো নাবালিকার। খবর পেয়ে চাইল্ড লাইনের উদ্যোগে জেলা সমাজ কল্যান দপ্তর,পূর্ব বর্ধমান জেলা আইনি সহায়তা কেন্দ্র এবং মহিলা থানার সহযোগিতায় নাবালিকার বিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হল বর্ধমা্নে। বিজয়রাম, সাধনপুর এলাকার বাসিন্দা ওই নাবালিকা। প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, পাত্রের বাড়ি সদরঘাট, পলেমপুর এলাকায়। নাবালিকার বাবার আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে বর্ধমান শহরের পাওয়ার হাউস পাড়ায় মেয়েটির মামার বাড়িতে বিয়ে উপলক্ষে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এই উপলক্ষে প্রস্তুতিও ছিল সম্পূর্ণ। প্রায় ৩০০ পরিজন ও প্রতিবেশীদের নিমন্ত্রন জানানো হয়েছিল নব দম্পতিকে আশীর্বাদ করার জন্য। কিন্তু নাবালিকা বিয়ের খবর পৌঁছে যায় চাইল্ড লাইন দপ্তরের আধিকারিকের কাছে। সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি জানানো হয় জেলা সমাজ কল্যান দপ্তরকে এবং জেলা আইনি সহায়তা কেন্দ্রে। এরপর মহিলা থানার পুলিশের সহযোগিতায় পাওয়ার হাউস পাড়ায় পৌঁছে বন্ধ করে দেওয়া হয় বিয়ের অনুষ্ঠান। 

নাবালিকার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, নবম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশোনা করার পর আর্থিক কারণে ছাত্রীটির স্কুলে যাওয়া বন্ধ হয়ে যায়। এদিন নাবালিকা বিয়ের খবর পাওয়ার পর তৎপরতার সঙ্গে ঘটনাস্থলে গিয়ে হাজির হন চাইল্ড লাইনের ডিসট্রিক্ট কো-অর্ডিনেটর অভিজিৎ চৌবে, সদস্য জলপা বেসরা, পিএলভি তপন সাহা এবং মহিলা থানার সবিতা মাঝি। নাবালিকার বাবা ও মাকে বিয়ে বন্ধ করতে নির্দেশ দেন তারা এবং বোঝান কেন ১৮ বছরের আগে মেয়ের বিয়ে দেওয়া অপরাধ। মেয়ে সাবালিকা না হওয়া পর্যন্ত তার বিয়ে যাতে না দেওয়া হয় তা বোঝানো হয় ছাত্রীর পরিবারকে। এছাড়া মেয়েদের জন্য সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের বিষয়েও তাদের সম্যক ধারণা দেওয়া হয়। নাবালিকার বাবা মুচলেকা দিয়ে জানান মেয়ের বয়স ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত মেয়ের বিয়ে দেবেন না। এদিন নাবালিকা বিয়ের বিরুদ্ধে পাড়ার প্রতিবেশীরাও সোচ্চার হয়েছিলেন।
নাবালিকার বিয়ে রদ করল বর্ধমান জেলা প্রশাসন
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top