728x90 AdSpace

Latest News

Wednesday, 14 March 2018

সরকারি হাসপাতালে শিশুর ব্লাড রিপোর্টে ভুল ! বর্ধমানে অভিযোগ ঘিরে চাঞ্চল্য

ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: সরকারি হাসপাতালে রক্ত পরীক্ষায় ব্লাড ক্যান্সারের রিপোর্ট এলেও বেসরকারি ল্যাবে রক্ত পরীক্ষার রিপোর্ট স্বাভাবিক। বর্ধমান মেডিকেল কলেজের হাসপাতালের বিরুদ্ধে রক্ত পরীক্ষার এমনই ভুল রিপোর্টকে ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল হাসপাতাল চত্বরে। অভিযোগকারী বর্ধমান শহরের দুবরাজদীঘির কেতলিপুকুর এলাকার বাসিন্দা শেখ টিঙ্কু। তাঁর অভিযোগ ,হাসপাতালে তাঁর ৮ বছরের মেয়ে আফরিন খাতুনের রক্ত পরীক্ষার রিপোর্টে এসেছে এমনই ভুল তথ্য।

শেখ টিঙ্কু জানান,আফরিন গত কয়েকদিন ধরে সর্দি-কাশিতে ভুগতে থাকায় তিনি শনিবার এলাকারই এক চিকিৎসকের কাছে তাকে নিয়ে যান। ওই চিকিৎসক আফরিনকে হাসপাতালে দেখানোর পরামর্শ দেন। সোমবার তাঁর মা হোসনা বেগম শেখ আফরিনকে হাসপাতালে যান। হাসপাতালে আফরিনের

রক্ত পরীক্ষা করা হয়। সোমবারই তাঁদের জানানো হয় আফরিনের রক্তপরীক্ষায় ব্ল্যাড ক্যান্সার ধরা পড়েছে। ঘটনায় গোটা পরিবার মানসিক ভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। তার ওপর চিকিৎসার খরচের কথা ভেবে মাথায় হাত পড়ে যায় তাদের।
শেখ টিঙ্কু জানিয়েছেন, হাসপাতাল থেকে জানানো হয় আফরিনকে কলকাতার এনআরএস-এ  স্থানান্তরিত করা হবে এবং সেখানেই তাকে কেমো দেবার ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে। যদিও এরই মধ্যে শিশুটিকে কয়েকটি ওষুধ এবং ইঞ্জেকশন দেবার চেষ্টা করা হলেও কিন্তু তাঁরা তা দিতে দেননি। 

শেখ টিঙ্কুর অভিযোগ ,হাসপাতালের ব্লাড রিপোর্ট নিয়ে সন্দেহ ছিল তার। সেই কারণে শহরের দুটি নামী বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে মেয়ের আবার রক্ত পরীক্ষা করেন তাঁরা। দুটি প্রতিষ্ঠানের রিপোর্টেই 
দেখা যায় শিশু একেবারে স্বাভাবিক,রক্তে ব্লাড ক্যান্সারের কোনো উপসর্গ ধরা পড়েনি। এরপরই শিশুর পরিবারের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন করা হয়েছে।

ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সুপার ডা.উৎপল দাঁ জানিয়েছেন,
যেহেতু ওই শিশুর পরিবারটি বাইরে থেকে রক্ত পরীক্ষা করে নিশ্চিত হয়েছেন, তাই গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য হাসপাতালের সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকদের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।
সরকারি হাসপাতালে শিশুর ব্লাড রিপোর্টে ভুল ! বর্ধমানে অভিযোগ ঘিরে চাঞ্চল্য
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top