728x90 AdSpace

Latest News

Wednesday, 28 March 2018

উদ্বোধনের পরেও বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বন্ধ 'সেবা' পরিষেবা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান:রোগীদের সেবা দেওয়ার পরিবর্তে খোদ 'সেবা' নামক ইকো রিক্সা অ্যাম্বুলেন্সটিকে ব্যবহার না করে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দিনের পর দিন রোদ,ঝড়,বৃষ্টি থেকে বাঁচিয়ে ইমার্জেন্সির পাশে শেডের নিচে সেটিকে দাঁড় করিয়ে রেখে দেওয়ায় ক্ষোভ বাড়ছে রোগীর পরিজনেদের মধ্যে।

উল্লেখ্য,পর্যাপ্ত স্ট্রেচারের অভাবে মুমুর্ষ রোগীদের ইমার্জেন্সি থেকে অথবা হাসপাতালের এক ওয়ার্ড থেকে অন্য ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা নিয়ে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিরুদ্ধে রোগীর পরিজনদের দীর্ঘদিনের অভিযোগ ছিল। এমনকি স্ট্রেচার থাকলেও সময়ে রোগীর জন্য তার ব্যবস্থা করার লোক পাওয়া যেত না বলেও বারবার অভিযোগ উঠেছে। শেষমেষ সেই সমস্যা সমাধানে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ভিতর রোগীর যাতায়াতের সুবিধার্থে বর্ধমান দক্ষিণ কেন্দ্রের বিধায়ক ড:রবিরঞ্জন চট্টোপাধ্যায় একটি ইকো রিক্সা অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবার উদ্বোধন করেন গত ২৯ জানুয়ারি। আনুষ্ঠানিকভাবে হাসপাতাল সুপার ডা.উৎপল দাঁ-এর হাতে এই অ্যাম্বুলেন্সের চাবিও তুলে দেওয়া হয় সেদিন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফে জানান হয়, অ্যাম্বুলেন্সটির পরিকাঠামোগত বেশ কিছু কাজ বাকি থাকায় সেই কাজ শেষ করে আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারী থেকে পুরোপুরি চালু করা হবে এই অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা। এমনকি পরিষেবা মিলবে ২৪ ঘন্টার জন্য। স্বাভাবিকভাবেই বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আগত রোগীর পরিজনেরা এই উদ্যোগের সাধুবাদও জানান।কিন্তু তারপরেও এই পরিষেবা চালু না থাকায় সমস্যা যে তিমিরে ছিল তাই রয়ে গেছে বলে রোগীর পরিবারের লোকেদের অভিযোগ। 

এব্যাপারে খোদ বিধায়ক রবিরঞ্জন চট্টোপাধ্যায়কে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন,এটা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষর ব্যার্থতা। তাঁর দায়িত্ব ছিল রোগী পরিষেবার উন্নতি সাধনে পদক্ষেপ নেওয়া। তাই ব্যাটারি চালিত ওই ইকো রিক্সা অ্যাম্বুলেন্সটিকে দেওয়া হয়। কিন্তু তার পরেও যদি জনস্বার্থে সেটির ব্যবহার না করা হয়,তাহলে বিষয়টি নিয়ে অবশ্যই খোঁজ নিতে হবে। আর যদি এখানে এটির ব্যবহার করার মত পরিকাঠামো না থাকে তাহলে ওই ইকো রিক্সা অ্যাম্বুলেন্সটিকে অন্যত্র পাঠিয়ে দেব। 

অন্যদিকে হাসপাতালের ডেপুটি সুপার ড:অমিতাভ সাহা জানান,সেবা ইকো রিক্সা অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা চালু রয়েছে। বর্তমানে সকাল ও দুপুরের শিফটে দুজন চালককে নিয়োগ করা হলেও খুব শীঘ্রই আরেকজন চালককে রাতের শিফটে নিযুক্ত করা হবে। তিনি জানান,খুব সম্প্রতি ৯২জনকে হাসপাতালের বিভিন্ন কাজের জন্য নেওয়া হয়েছে। সেখান থেকেই একজনকে  ইকো রিক্সা অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবার চালক পদে নিয়োগ করা হবে।

যদিও বুধবার হাসপাতালে আগত রোগীর পরিজনদের অনেকেই অভিযোগ করেছেন,ওই অ্যাম্বুলেন্সটি চলেই না। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে সেটিকে রোগী সহায়তা কেন্দ্রের বারান্দায় চাবি দিয়ে রেখে দেওয়া হয়েছে।   

উল্লেখ্য,বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্ট্রেচারের অভাবে অনেকসময় রোগীকে খাটিয়া করে অথবা চ্যাঙদোলা করে এক ওয়ার্ড থেকে অন্য ওয়ার্ডে নিয়ে যেতে হয় রোগীর পরিজনেদের। এই অসুবিধা দূর করতেই হাসপাতালকে 'সেবা' নামে এই ইকো রিক্সা অ্যাম্বুলেন্সটি প্রদান করা হয়েছিল।এমনকি এতে স‌্যালাইন, অক্সিজেনের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। প্রশ্ন উঠছে - সব ব্যবস্থা থাকতেও কেন রোগীকে এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে কষ্ট করে পরিবারের লোকেদের এখনও যাতায়াত করতে হবে।   






উদ্বোধনের পরেও বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বন্ধ 'সেবা' পরিষেবা
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top