728x90 AdSpace

Latest News

Wednesday, 21 February 2018

বর্ধমানে অনাথ পুজার বিয়ে দিতে এগিয়ে এলেন এলাকার মানুষ


সৌরীশ দে,বর্ধমান:মাত্র দুদিনের নোটিশে বাবা, মা মরা অসহায় এক কন্যার ধুমধাম করে বিয়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করল বর্ধমানের সদরঘাট ছট পুজো ওয়েলফেয়ার সমিতির সদস্যরা।বিয়েতে সোনার কানের দুল থেকে দান সামগ্রী সবই দেওয়া হল অনাথ পূজার পশে দাঁড়িয়ে।বিয়ে উপলক্ষে পাড়া প্রতিবেশীদের নিমন্ত্রণ করে প্রায় ২০০জনকে খাওয়ানো হল মাংস,ভাত,মিষ্টি। নিমন্ত্রিতরাও নব দম্পতিকে আশীর্বাদ ও সাধ্যমত উপহার দিয়ে গেলেন।
বর্ধমানের মেহেদিবাগান এলাকায় মঙ্গলবার এই অনাথ,দুস্থ,অসহায় কন্যার বিয়েতে সাহায্য করতে পেরে যারপরনাই খুশি সংস্থার সদস্য থেকে কর্মকর্তারা। সংস্থার সভাপতি গিরিজা শংকর গুপ্তা, সম্পাদক নেপাল রাউত জানিয়েছেন, প্রায় ১০ বছর আগে পুজার বাবা রোগগ্রস্থ হয়ে মারা যান।বর্ধমানের মেহেদিবাগান এলাকায় তাঁর একটি সোনপাপড়ির কারখানা ছিল। আর্থিক কারণে কারখানা বন্ধ হয়ে পড়ার পর তিনি দূরারোগ্য রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তার কিছুদিনের মাথায় পুজার মা-ও বিদ্যুতের শক খেয়ে মারা যায়। ফলে অনাথ হয়ে পড়ে পুজা।

আর এরপর থেকেই মা-বাবা মরা পূজার দেখাশোনার কাজ সামলাচ্ছিলেন প্রতিবেশী শোভা সোনকার নামে পূজারই এক প্রতিবেশী।নেপাল রাউত জানিয়েছেন,পূজা লোকের বাড়িতে কাজ করে কোনরকমে জীবন অতিবাহিত করছিল। থাকত নিজের ছোট্ট ঘরেই। তবে পূজার সুবিধা অসুবিধার বিষয়গুলি দেখতেন শোভা দেবী।বছর খানেক আগে পূজার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে বর্ধমানের নীলপুর শালবাগানের বাসিন্দা পেশায় সেলুন কর্মী এবং রাতে ক্যাটারিং-এর কাছে যুক্ত শিবনাথ শীলের সঙ্গে।
কিন্তু অসহায় এবং আর্থিক সঙ্গতিহীনতা এই প্রেমের পরিণতিতে বাদ সাধে। বাধ্য হয়েই শেষে প্রতিবেশী সভা দেবীর মাধ্যমে পুজা আবেদন করে স্থানীয় ছটপুজো ওয়েলফেয়ার সমিতির কাছে। আর তারপরেই মঙ্গলবার রাতে রীতিমত ধূমধাম করেই ছটপুজো ওয়েলফেয়ার সমিতির উদ্যোগে পাড়া প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলেন পুজা আর শিবনাথের চারহাত এক করার অনুষ্ঠানে।
বিবাহ অনুষ্ঠান শেষে পূজার অকপট স্বীকারোক্তি,বাকি জীবনটা সুখে কাটুক এটাই ভগবানের কাছে প্রার্থনা করছি। আর পূজার ভাত কাপড়ের দায়িত্ব নিয়ে শিবনাথের বক্তব্য,আমরা সুখী হবই। 
বর্ধমানে অনাথ পুজার বিয়ে দিতে এগিয়ে এলেন এলাকার মানুষ
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top