728x90 AdSpace

Latest News

Monday, 26 February 2018

হোলির রঙের সাথে মিশে আছে ভারতের জনপ্রিয় কিছু ট্রাডিশনাল রেসিপি


ফোকাস বেঙ্গল ওয়েব ডেস্কঃ হোলি মানে শুধু রঙের উৎসবই নয়, হোলি মানে ভারতের বেশ কিছু ট্রাডিশনাল খাওয়া-দাওয়ার উৎসবও। আসলে নানা ভাষা-নানা মত, নানা পরিধানের দেশে রসনার স্বাদও নানারকম। সেই স্বাদ অনুযায়ী দেশের এক এক প্রদেশে খাবার-দাবারের রেসিপিও এক-একরকম । হোলির দিনে সেইসব রেসিপির স্বাদ নিতে বাদ যায়না কচি থেকে বুড়োদের দল।সেরকমই কিছু খাবারের সন্ধান এখানে দেওয়া হল।



ঠান্ডাই- হোলির সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে এই সুস্বাদু পানীয়ের নাম। বাদামের সঙ্গে নানা মশলা, যেমন এলাচ,ফেনেল,গোলাপের পাপড়ি,পোস্ত-বীজ প্রভৃতি মিশিয়ে তৈরী হয় এই মিশ্রণটি।  খানিক নেশার বস্তু হলেও শরীরকে দারুণ চাঙ্গা করে তোলে। হোলি খেলার সময় ভারতের প্রায় সব প্রান্তেই এই ঠান্ডাই পানের এর চল রয়েছে। বাংলায় এটি ভাঙের শরবত বলেও পরিচিত।

 
পুরাণ পোলি - এটি পশ্চিম ভারতের মূলত মহারাষ্ট্রের একটি জনপ্রিয় খাবার যা হোলির সময় এখানকার প্রায় সব ঘরেই বানানো হয়ে থাকে। সেদ্ধ মটরশুঁটির পুর দিয়ে ঠাসা একটি পরোটা বিশেষ। তবে পুরের সঙ্গে মিষ্টি মেশানো হওয়ায় পরোটার স্বাদ হয় মিষ্টি। পুরের সঙ্গে মশলা হিসাবে ব্যবহার করা হয় আদা ,জায়ফল ও কেজরিওয়াল। ঘি বা বাটার দিয়ে পরোটা ভাজা হয়।


দইবড়া - ময়দা ও আলু দিয়ে তৈরী বড়া বেশ খানিক্ষণ ভিজিয়ে রেখে দিতে হবে। বড়া জল  শুষে নেওয়ার পর দই-এর সাথে পুদিনা পাতা ,চিনির গুঁড়ো, নারকেল কোঁড়া, জিরে গুঁড়ো, লঙ্কাকুচি,ও চাট  মশলা মিশিয়ে ছড়িয়ে দিতে হবে বড়াগুলির ওপর। হোলিতে দইবড়া একটি প্রচলিত পদ।


গুজিয়া - হোলির সময় গুজিয়া বানানো হয় না-এদেশে এমন অবাঙালি পরিবার প্রায় নেই। দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ,বিহার, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ এবং মহারাষ্ট্রের পাশাপাশি এই স্ন্যাক্সটি এখন বাংলাতেও অতি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এর স্বাদ মিষ্টি। ময়দার লেচিতে বাদাম ও খোয়ার পুর ভরে প্রথমে ভেজে নিয়ে তারপর কিছুক্ষণ চিনির রসে ডুবিয়ে রেখে তুলে নিলেই তৈরী গুজিয়া।

 
ভাঙ-এর কচুরি -ভাঙ-কে শুভ পানীয় বলে ধরা হয়। এটি শিবের পছন্দের পানীয় হওয়ায় ভারতের বহু ধার্মিক অনুষ্ঠানেই এই পানীয় ব্যবহারের চল রয়েছে। বিশেষ করে হোলির দিনে ভাঙ পানের মাধ্যমে  আনন্দ করার একটা প্রথাই চলে আসছে যুগ যুগ ধরে। এর সঙ্গে আছে ভাঙ -এর কচুরি। কচুরি বানানোর উপকরণের সাথে ভাঙ মিশিয়ে পুর তৈরী করে কচুরি ও পকোড়া তৈরী করা হয়। সঙ্গে থাকে ভাং মেশানো চাটনিও। এটি ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে হোলির দিনের জন্য একটি মনপসন্দ খাবার। 




আলুর দম,লুচি - হোলি উৎসবে বাঙালির রসনাও জমে ওঠে লুচি আর আলুর দমের সঙ্গে। বলাবাহুল্য এই পদটি বাংলার একটি ট্রাডিশনাল ডিশ। 
এছাড়া দল বেঁধে বাড়ি বাড়ি ঘুরে রং খেলতে এসে বাংলার বিখ্যাত রসগোল্লা খাওয়ার প্রচলন তো রয়েছেই। সঙ্গে থাকে আরও নানান ধরণের মিষ্টির পদ।

 
হোলির রঙের সাথে মিশে আছে ভারতের জনপ্রিয় কিছু ট্রাডিশনাল রেসিপি
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top