728x90 AdSpace

Latest News

Saturday, 17 February 2018

ট্রেনের রুট বদলকে ঘিরে মাঝরাতে যাত্রী বিক্ষোভ বর্ধমান স্টেশনে

ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমান: যাত্রীদের না জানিয়ে ট্রেনের রুট বদলকে ঘিরে শুক্রবার মাঝরাতে যাত্রী বিক্ষোভে উত্তাল হল বর্ধমান স্টেশন। অভিযোগ, কোনোরকম ঘোষণা ছাড়াই শুক্রবার রাতের শিয়ালদা-বারাণসী এক্সপ্রেসের রুট বদল করা হয়েছে। ট্রেনটি প্রতিদিন শিয়ালদা থেকে বর্ধমান ও রামপুরহাট হয়ে বারাণসী যায়। কিন্তু এদিন রাতে ট্রেনটি রামপুরহাটের বদলে আসানসোল হয়ে বারাণসী যায়।
রামপুরহাটের যাত্রী রঞ্জন চৌধুরী, সন্তু সরকার,সেলিম খান, বলাকা দাশগুপ্ত প্রমুখদের অভিযোগ, বিষয়টি শিয়ালদা থেকে ট্রেন ছাড়ার আগে তাদের জানায়নি রেল কর্তৃপক্ষ। বর্ধমান ঢোকার আগে ট্রেনের নিরাপত্তা কর্মীদের কাছ থেকে যাত্রীরা জানতে পারেন ট্রেনটি রামপুরহাট হয়ে নয়, আসানসোল হয়ে বারাণসী যাবে। ফলে বর্ধমান স্টেশনে তারা নেমে পড়তে বাধ্য হন। পাশাপাশি এত রাতে রামপুরহাট যাবার গাড়ি পেতেও তাদের যথেষ্ট বেগ পেতে হয়েছে বলে জানান ক্ষুব্ধ যাত্রীরা। 
ঘটনার জেরে ক্ষিপ্ত যাত্রীরা শুক্রবার রাত্রি প্রায় সাড়ে এগারোটা নাগাদ তুমুল বিক্ষোভ দেখান বর্ধমান স্টেশন ম্যানেজারের ঘরে। তাদের বাধা দিতে গেলে আরপিএফ-এর সঙ্গেও যাত্রীদের বচসা ও ধস্তাধস্তি হয়। যদিও শেষপর্যন্ত রামপুরহাটের বদলে আসানসোল হয়েই বারাণসী যায় ট্রেনটি। 

এ বিষয়ে বর্ধমান ষ্টেশন ম্যানেজার স্বপন অধিকারী জানিয়েছেন, শুক্রবার রাত থেকে শনিবার পর্যন্ত আপ ১৩১৩৩ শিয়ালদহ বারাণসী এক্সপ্রেসের রুট বদল করা হয়েছে। মোকামা স্টেশনে ইণ্টারলকিং
সিস্টেমের জন্য কিছু গাড়িকে অন্য রুটে তথা মেন লাইন দিয়ে পাশ করানো হচ্ছে। যেটা মোকামা হয়ে যায়, সেটা মেন লাইন হয়ে যাবে। এবিষয়ে কয়েকদিন আগে সংবাদপত্রে নোটিফিকেশন করা হয়েছে। তারপরেও রামপুরহাটগামী ওই যাত্রীরা গাড়িটিতে চেপে পড়েন। স্বপনবাবু জানান,রাত সাড়ে এগারোটা নাগাদ ট্রেনটি বর্ধমান স্টেশনে পৌঁছালে ওদের নামিয়ে রামপুরহাট রুটের গাড়িতে চাপার জন্য অনুরোধ করা হয়। সে সময় বর্ধমান স্টেশনে দাঁড়িয়ে থাকা গৌড় এক্সপ্রেস ধরে তারা রামপুরহাটের উদেশ্যে রওনা হন। 
ট্রেনের রুট বদলকে ঘিরে মাঝরাতে যাত্রী বিক্ষোভ বর্ধমান স্টেশনে
  • Title : ট্রেনের রুট বদলকে ঘিরে মাঝরাতে যাত্রী বিক্ষোভ বর্ধমান স্টেশনে
  • Posted by :
  • Date : February 17, 2018
  • Labels :
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a comment

Top