728x90 AdSpace

Latest News

Monday, 9 September 2019

বর্ধমান শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখতে ফেলে দেওয়া সামগ্রী দিয়ে হস্তশিল্পে যুক্ত করা হল স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের



ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: গত ২৬ আগষ্ট বর্ধমানের সংস্কৃতি লোকমঞ্চে এসে প্রশাসনিক সভায় খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বর্ধমান শহর তথা বর্ধমান পুরএলাকার জঞ্জাল সাফাইয়ের কাজ কেমন হচ্ছে তা জানতে চেয়েছিলেন জেলা প্রশাসনের কাছে। ডেঙ্গু নিয়ে ব্যাপক প্রচারের পাশাপাশি শহরের জঞ্জাল সাফাইয়ের বিষয়েও সমান গুরুত্ব দেবার নির্দেশ দিয়ে যান মুখ্যমন্ত্রী। আর তাঁর নির্দেশ পাবার পরই শহরকে পরিচ্ছন্ন তথা জঞ্জাল মুক্ত করতে উঠেপড়ে লাগে প্রশাসক নিযুক্ত বর্ধমান পুরসভা।বর্ধমান পুরকর্তৃপক্ষ বর্ধমান শহরের ৩৫টি ওয়ার্ডেই এব‌্যাপারে স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের কাজে লাগানোর নির্দেশ দিয়ে দেন।আর তারপরেই বর্ধমান শহরের মোট ১০৯৩টি স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের নিয়ে ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রতিটি ওয়ার্ডের প্রতিটি বাড়ি বাড়ি সপ্তাহব্যাপী পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানো হয়। 

কিন্তু কেবল শহর পরিচ্ছন্ন বা আর্বজনা মুক্তই নয়, এবার শহরের ফেলে দেওয়া সামগ্রীকে কিভাবে ফের কাজে লাগানো যায় – তানিয়েই এবার কর্মযজ্ঞ শুরু করল বর্ধমান পুরসভা। তারই প্রথম ধাপে বর্ধমান পুরসভার উদ্যোগে সোমবার বর্ধমান টাউন হলে হয়ে গেল একটি প্রদর্শনী।বর্ধমান পুরসভার কো-অর্ডিনেটর তাপস মাকড় জানিয়েছেন, একদিকে শহরকে পরিচ্ছন্ন করা, অন্যদিকে সেই ফেলে দেওয়া সামগ্রীকে কাজে লাগিয়ে নতুন করে রোজগারের পথ দেখানোর উদ্যোগ নিয়েছে বর্ধমান পুরসভা। এই কাজে যুক্ত করা হয়েছে বর্ধমান পুরসভার বিভিন্ন মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীকে। সোমবার বর্ধমান টাউন হলে মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীর প্রায় ৪০ জন মহিলা এই প্রদর্শনীতে অংশ নিলেন। রাস্তায় ফেলে দেওয়া বোতল থেকে একাধিক বিষয়কে তুলে এনে তৈরী করা হয়েছে বিভিন্ন মডেল। তাপসবাবু জানিয়েছেন, এই সমস্ত হাতের কাজগুলিকে তাঁরা বিপণনের জন্য বর্ধমান পুরসভার নিজস্ব কাউণ্টার ছাড়াও বিভিন্ন মেলা ও অনুষ্ঠানে তাদের জন্য আলাদা স্টলের ব্যবস্থা করা হবে। তিনি জানিয়েছেন, এই কাজকে উৎসাহ দিলে একদিকে যেমন শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখা যাবে, তেমনি মহিলারাও রোজগারের পথ খুঁজে পাবেন।


বর্ধমান পুরসভার আধিকারিক অমিত গুহ জানিয়েছেন, এই স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলিকে নিয়ে তাঁরা ইতিমধ্যে আলোচনা করেছেন। প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে গাছ লাগানোর পাশাপাশি প্রতিটি বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্লাষ্টিক বর্জন করার ডাকও দিচ্ছেন তাঁরা। প্রত্যেক বাসিন্দাকেই নিজের নিজের এলাকাকে পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য তাঁরা আবেদন জানাচ্ছেন।
বর্ধমান শহরকে পরিচ্ছন্ন রাখতে ফেলে দেওয়া সামগ্রী দিয়ে হস্তশিল্পে যুক্ত করা হল স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top