728x90 AdSpace

Latest News

Tuesday, 3 September 2019

বর্ধমানের স্কুলে ছাত্রীদের গায়ে হাত, প্রতিবাদে বিক্ষোভ ছাত্রছাত্রীদের, আটক শিক্ষক


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: দীর্ঘদিন ধরে ক্লাসে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানির অভিযোগের কোনো নিষ্পত্তি না হওয়া এবং অভিযুক্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে কোনোরকম ব্যবস্থা গৃহিত না হওয়ায় মঙ্গলবার বিক্ষোভে ফেটে পড়লেন ছাত্রছাত্রীরা। ঘটনাটি ঘটেছে বর্ধমানের বিদ্যাসাগর উচ্চ বিদ্যালয়ে। মঙ্গলবার এই স্কুলের নবম ও দশম শ্রেণীর ছাত্রছাত্রীরা অভিযুক্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং তাঁদের স্কুল থেকে তাড়িয়ে দেওয়া না হলে স্কুলেই আসবে না বলে ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে স্কুলে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেওয়ানদিঘী থানা থেকে পুলিশ গিয়ে অভিযুক্ত এক শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে। 

এদিন নবম ও দশম শ্রেণীর ছাত্রীরা অভিযোগ করেছেন,এই স্কুলের দুই শিক্ষক তুষারকান্তি পাঁজা এবং নজরুল সেখ গত কয়েকমাস ধরেই পড়ানোর নামে গায়ে হাত দিচ্ছেন। এব্যাপারে তারা প্রতিবাদও করে। জানানো হয় অভিভাবকদেরও। অভিভাবকরাও লিখিত অভিযোগ দায়ের করে স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে। এমনকি গোটা বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই তদন্তে নেমেছে জেলা চাইল্ড প্রোটেকশন দপ্তর। 

ছাত্রীরা জানিয়েছেন, ওই শিক্ষকের কাণ্ডকারখানায় তারা আতংকিত। এভাবে তারা স্কুলে আসতে পারবে না। ওই দুই শিক্ষককে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেবার পাশাপাশি এই স্কুল থেকে তাড়িয়ে দেবার দাবীতে এদিন ছাত্রছাত্রীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। অন্যদিকে,এই ঘটনায় স্কুল কর্তৃপক্ষ কোনোভাবেই মুখ খুলতে চাননি। স্কুল সূত্রে জানা গেছে, এদিন স্কুলে নজরুল সেখ নামে ওই শিক্ষক আসেননি। অপর শিক্ষক তুষারকান্তি পাঁজা জানিয়েছেন, স্কুলের কয়েকজন শিক্ষক শিক্ষিকা ছাত্রছাত্রীদের উস্কে দিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করিয়েছেন। যেহেতু এখন ক্লাসে বেত বা ছড়ি নিয়ে যাওয়া নিষেধ। তাই তিনি কয়েকজন ছাত্রছাত্রীকে পড়াশোনার প্রয়োজনে কখনও সখনও অল্প মারধর করেছেন হাত দিয়েই। অন্যদিকে, এদিন পরিস্থিতি মোকাবিলায় দেওয়ানদিঘী থানার পুলিশ স্কুলে এসে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে নিয়ে যায় অভি্যুক্ত শিক্ষককে।
বর্ধমানের স্কুলে ছাত্রীদের গায়ে হাত, প্রতিবাদে বিক্ষোভ ছাত্রছাত্রীদের, আটক শিক্ষক
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top