728x90 AdSpace

Latest News

Monday, 5 August 2019

বর্ধমান পৌরসভায় অস্থায়ী কর্মীদের আন্দোলন অব্যাহত, ক্রমশই ঘোরালো হচ্ছে পরিস্থিতি


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ প্রায় ৮ মাস ধরে নেই কোনো নির্বাচিত পুরবোর্ড। ফলে ক্রমশই বর্ধমান পুরসভার হাল খারাপ হচ্ছে। নির্বাচিত কোনো পুরবোর্ড না থাকায় একাধিক পৌর পরিষেবায় ক্রমশই সমস্যা দেখা দিচ্ছে। তারই মাঝে পুরসভার অস্থায়ী প্রায় ১১৫০ কর্মী বেতন বৃদ্ধির দাবীতে ৭দিন ধরে লাগাতার কর্মবিরতি এবং বিক্ষোভ দেখানোয় পরিস্থিতি ক্রমশই ঘোরালো হয়ে উঠছে। সোমবার বিক্ষোভরত অস্থায়ী কর্মী সাগরিকা ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরেই তাঁরা বেতন বৃদ্ধির দাবী জানিয়ে আসছেন। তাঁরা অত্যন্ত কম বেতনে কাজ করছেন। কিন্তু তাঁদের পক্ষে আর এই কম বেতনে কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না।

তিনি জানিয়েছেন, বর্ধমান পুরসভার মোট যে কর্মী তার মধ্যে অস্থায়ী কর্মীদের সংখ্যাই বেশি। অস্থায়ী কর্মীরাই পুরসভার ভেতর ও বাইরে কাজ করে পৌর পরিষেবাকে স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করেন। কিন্তু তাঁদের দাবী দীর্ঘদিন ধরেই উপেক্ষিত রয়েছে। সাগরিকাদেবী জানিয়েছেন, গত ১৫ জুলাই মুখ্যমন্ত্রী অস্থায়ী কর্মীদের পৃথক বেতন কাঠামো ঘোষণা করেছেন। তাঁরাও চান মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ীই তাঁদের বেতন দেওয়া হোক। কিন্তু তাঁরা এখনও তার কোনো সদুত্তর পাননি। ইতিমধ্যে তাঁরা কয়েকদফায় পুর কর্তৃপক্ষ তথা প্রশাসকের কাছে তাঁদের দাবী জানিয়েছেন কিন্তু কোনো সুরাহা হয়নি। তিনি জানিয়েছেন, তাঁদের দাবী পূরণ না হওয়া পর্যন্ত এই আন্দোলন চলতেই থাকবে।

এদিকে, পুরসভা সূত্রে জানা গেছে, গত প্রায় ৮ মাসেরও বেশি সময় ধরে বর্ধমান পুরসভায় কোনো নির্বাচিত পুরবোর্ড না থাকায় চরম সমস্যা দেখা দিয়েছে। পুরসভার ওন ফাণ্ডের অবস্থাও ক্রমশ তলানিতে ঠেকছে।পাশাপাশি পুরসভার কর আদায়ও যথাযথভাবে না হওয়ায় পরিস্থিতি ক্রমশই ঘোরালো হয়ে উঠেছে। বর্ধমান পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান ইন কাউন্সিল খোকন দাস জানিয়েছেন, প্রায় ৯ কোটি টাকা পুরসভার কর বাবদ আদায় হওয়ার কথা। কিন্তু কর্মী অভাবে সেই কাজ হচ্ছে না। নির্বাচিত কোনো বোর্ড না থাকায় কর্মীদের দিয়ে কর আদায়ও যথাযথভাবে করা যাচ্ছে না।

খোকন দাস জানিয়েছেন, পুরসভার নিজস্ব যে ফাণ্ড রয়েছে সেখান থেকেই এখন কর্মীদের বেতন দিতে হচ্ছে। ফলে নিজস্ব ফাণ্ডও দুর্বল হয়ে পড়ছে। এদিকে,অস্থায়ী কর্মীদের এই আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে খোকন দাস জানিয়েছেন, কর্মীদের দাবী মেনে তাদের বেতন ৭৫০ টাকা করে বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন খোদ জেলাশাসক বিজয় ভারতী। কিন্তু এখনও তা মানেনি অস্থায়ী কর্মীরা। অপরদিকে, পুরসভার সহকারী এক্সিকিউটিভ অফিসার অমিত গুহ জানিয়েছেন, অস্থায়ী কর্মীদের দাবীদাওয়া নিয়ে তিনি আলোচনা করেছেন। তাঁদের দাবী উপরমহলে পাঠানো হয়েছে।

তিনি জানিয়েছেন, সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী যে অস্থায়ী কর্মীদের জন্য বেতন কাঠামো ঘোষণা করেছেন তা বর্ধমান পুরসভার অস্থায়ী কর্মীদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য কিনা তা জানতে চেয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে। কিন্তু এখনও কোনো উত্তর আসেনি। অপরদিকে, তিনি স্বীকার করেছেন, অস্থায়ী কর্মীদের আন্দোলনের জেরে পুরসভার আভ্যন্তরীণ কাজে ব্যাঘাত ঘটছে। সাধারণ মানুষ পৌর পরিষেবা থেকে অনেকাংশেই বঞ্চিত হচ্ছেন।
বর্ধমান পৌরসভায় অস্থায়ী কর্মীদের আন্দোলন অব্যাহত, ক্রমশই ঘোরালো হচ্ছে পরিস্থিতি
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top