728x90 AdSpace

Latest News

Friday, 12 October 2018

৭২দিন লড়াই শেষে অত্যাচারের কাছে হার স্বীকার করলেন বীরভূমের সেই গৃহবধু


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ ৭২ দিনের লড়াই চালিয়েও শেষ রক্ষা হল না বীরভূমের কাঁকড়তলার সেই গৃহবধুর। শুক্রবার বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিসিইউতে তাঁর মৃত্যু হল। মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ১০ বছর আগে বিয়ে হয়েছিল ওই গৃহবধুর। তাদের ৮ বছরের ছেলে এবং ৩ বছরের একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে। প্রায় আড়াই মাস আগে কন্যা সন্তানকে দুবরাজপুর হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে নিয়ে যাবার জন্য তিনি বাড়ি থেকে বেড়িয়েছিলেন। পথে বাস থেকে কন্যা সন্তান সহ তাকে নামিয়ে পূর্ব পরিচিত এক যুবক তাঁদের অন্যত্র নিয়ে যায়। এরপর ওই গৃহবধুর ওপর ব্যাপকভাবে শারীরিক নির্যাতন চালানো হয়। এরপর পালিয়ে যায় ওই যুবক। স্থানীয় মানুষজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই গৃহবধু এবং তার কন্যা সন্তানকে উদ্ধার করে বীরভূমের সিউড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরের দিন বাড়ির লোকজন অচৈতন্য অবস্থায় ওই গৃহবধুকে সহ শিশু কন্যাটিকে সিউড়ি সদর হাসপাতালে খুঁজে পান। শিশু কন্যাটি সুস্থ হয়ে গেলেও অত্যাচারের জেরে বাকরুদ্ধ তথা ট্রমায় আক্রান্ত হন ওই গৃহবধু। এরপর তাঁকে প্রায় আড়াই মাস আগে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তাঁকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিসিইউতে ভর্তি করা হয়। প্রায় ৭২দিন ভর্তি থাকার পর শুক্রবার তার মৃত্যু হয়।

মৃতের পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন, এই ঘটনায় অভিযুক্ত যুবককে পুলিশ গ্রেপ্তারও করে। বর্তমানে সে জামিনে রয়েছে। কিন্তু দীর্ঘ লড়াইয়ের পরও ওই গৃহবধু প্রাণ নিয়ে বাড়ি ফিরতে না পারায় গোটা পরিবারে রীতিমত হতাশা নেমে এসেছে। উল্লেখ্য, এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সেই সময় রীতিমত আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছিল রাজ্য জুড়েই। ওই গৃহবধুর শরীরে শারীরিক নির্যাতনের চিহ্ন মিললেও তাঁকে ধর্ষণ করা হয়নি বলেই প্রশাসনিকভাবে জানানো হয়েছিল। অপরদিকে, শুক্রবার দীর্ঘ লড়াইয়ের পর ওই গৃহবধুর মৃত্যুর ঘটনায় অভিযুক্ত যুবকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেছেন মৃতের পরিবারের লোকজন।
৭২দিন লড়াই শেষে অত্যাচারের কাছে হার স্বীকার করলেন বীরভূমের সেই গৃহবধু
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top