728x90 AdSpace

Latest News

Thursday, 10 May 2018

বর্ধমানে মালগাড়ির ওপরে উঠে সেলফি তুলতে গিয়ে মৃত অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমানঃ তেলের ট্যাংকারবাহী মালগাড়ির ওপরে উঠে সেলফি তুলতে গিয়ে রেলের তারে বিদ্যুত্স্পৃষ্ট হয়ে মর্মান্তিকভাবে মৃত্যু হল এক অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রের। মৃত ছাত্রের নাম অতুল কুমার প্রসাদ (১৪)। আদি বাড়ি বিহারে হলেও বর্ধমানের রেল অফিসার্স কলোনীতে বাবা-মার সঙ্গে থাকত। বাবা চন্দন বিকাশ প্রসাদ রেল দপ্তরের একজন অফিসার। অতুল দিল্লী পাবলিক স্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র ছিল।
বর্ধমান ৬নং ওয়ার্ডের তৃণমূল কংগ্রেসের কাউন্সিলার সৈয়দ মহম্মদ সেলিম জানিয়েছেন, বুধবার বিকাল ৫টা নাগাদ অতুল এবং তার এক বন্ধু বর্ধমানের ডিজেল সেডের মালগাড়ি কারসেড এলাকায় যায়। সেখানে তখন দাঁড়িয়েছিল একটি তেল ট্যাঙ্কারবাহী মালগাড়ি। এরপর অতুল তেল ট্যাঙ্কারের উপরে উঠে পড়ে। হাতে মোবাইল নিয়ে ওপরে হাত তুলে ছবি তুলতে গেলেই বিকট আওয়াজ হয়। বিকট আওয়াজের সঙ্গে সঙ্গেই দাউ দাউ করে জ্বলতে থাকে সে। এই ঘটনায় আশপাশের লোকজন ভয়ে আতংকিত হয়ে পড়েন। এই ঘটনার পরই সঙ্গী অন্য বন্ধুটি ছুটে এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। ঘটনার আকস্মিকতায় এলাকার বাসিন্দারা প্রথমে কিছু বুঝে উঠতে পারেননি। পরে রেললাইনে গিয়ে দেখতে পান দগ্ধ ছাত্রটির দেহ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, দুটি ছেলেকে তাঁরা রেল লাইনে যেতে দেখেছিলেন। তার মধ্যে একজনকে হাতে মোবাইল নিয়ে তেল ট্যাঙ্কারের ওপরে তাঁরা উঠতেও দেখেন। কিন্তু তাঁরা বুঝতে পারেননি। কিন্তু বিকট আওয়াজের পাশাপাশি দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখেই তাঁরা ছুটে যান ঘটনাস্থলে। খবর পেয়ে রাত প্রায় ১০টা নাগাদ জিআরপি মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।
বৃহস্পতিবার সকালে মৃত ছাত্রের পরিচয় জানতে পারেন এলাকার বাসিন্দারা। এই ঘটনার পর গোটা এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। অন্যদিকে, এলাকার বাসিন্দারা জানিয়েছেন, তেল ট্যাঙ্কারে তেল ভর্তি ছিল। ফলে এদিন আরও একটি ভয়াবহ ঘটনা ঘটে যেতে পারত।
                                                                                                                            ছবি - ইন্টারনেট 
বর্ধমানে মালগাড়ির ওপরে উঠে সেলফি তুলতে গিয়ে মৃত অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র
  • Title : বর্ধমানে মালগাড়ির ওপরে উঠে সেলফি তুলতে গিয়ে মৃত অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র
  • Posted by :
  • Date : May 10, 2018
  • Labels :
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top