728x90 AdSpace

Latest News

Friday, 4 May 2018

ভাগাড় কাণ্ডের জের, বর্ধমানের রেস্তোরায় হানাদারি পুরসভার


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক, বর্ধমানঃ  রাজ্য জুড়ে ভগারের মাংস নিয়ে হৈ চৈ এর মধ্যে এবার পথে নামল বর্ধমান পুরসভা ।খোদ পুরসভার চেয়ারম্যান এর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল শুক্রবার শহরের বেশ কয়েকটি অভিজাত হোটেল এবং রেস্তোরাঁয় খাবারের মান পরীক্ষা সহ কাঁচামালের গুনমান খতিয়ে দেখতে অভিযান চালাল । পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, গোটা জেলা জুড়েই খাবারের মান সংক্রান্ত বিষয়ে সংশ্লিষ্ট স্থানীয় প্রশাসকদের কড়া নজর রাখতে বলা হয়েছে। কোথাও কোনো অনিয়ম দেখলেই দ্রুত জেলাস্তরে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। আর এরপরই কার্যত নড়েচড়ে বসেছে পুর কত্রিপক্ষ। এদিন দুপুরে পুর প্রতিনিধিদলের সদস্যরা বর্ধমান শহরের ঢলদিঘী,রাধানগর পাড়ার দুটি অভিজাত হোটেলে হানা দেয় ।সেখানাকার খাবারের মান এবং খাবার তৈরি করার জন্য ফ্রিজে রাখা অনেকদিনের মাছ,মাংসের অবস্থা দেখে তিব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন তাঁরা। এমনকি সেই সময় দুপুরের আহার সারতে আসা অতিথিদের সামনেই চেয়ারম্যান স্বরূপ দত্ত সেই হোটেলের খাবারের মান সম্পর্কে তাদের জানিয়ে দেন ।তিনি বলেন,এরপর খেতে এলে আগে রান্নাঘরে গিয়ে দেখে নেবেন আপনাকে আসলে কি খেতে দেওয়া হচছে ।

স্বরূপ দত্ত জানিয়েছেন, পরিদর্শনের সময় দেখা গেছে ফ্রিজের মধ্যে বেশ কয়েকদিন আগেকার তৈরী শাক রান্না করে রাখা রয়েছে। যার ওপর ছত্রাক সৃষ্টি হয়েছে। মাংসের ওপর একপুরু কালো আবরণ।এদিন প্রতিনিধিদলটি  এই সমস্ত খাবারের নমুনাও সংগ্রহ করেও নিয়ে গেছেন ।তিনি জানান,এই নমুনা কলকাতায় পরীক্ষার জন্য পাঠানো হবে ।যদি অনিয়ম ধরা পরে তাহলে কঠোরতম শাস্তি দেওয়া হবে ।পাশাপাশি অভিযুক্ত হোটেলটি বন্ধও করে দেওয়া হবে ।


এদিন ঢলদিঘী পেট্রোল পাম্পের কাছে আরও দুটি রেস্তোরা  সহ জিটি রোডের ওপর একটি বিরিয়ানির দোকানেও অভিযান চালান হয় । যদিও এই দোকান গুলিতে বিশেষ কিছু অনিয়ম ধরা পরেনি বলে জানিয়েছেন প্রতিনিধি দলের সঙ্গে থাকা পুরসভার এম সি আই সি খোকন দাস ।

পুরপতি ক্ষোভের সঙ্গেই এদিন জানিয়েছেন, এই বিষয়ে  নিয়মিত দেখভাল করার মত সরকারী পরিকাঠামো এখনও নেই। দুই বর্ধমান জেলায় এই ধরণের কোনো দপ্তরই নেই। আবার পুরসভার এব্যাপারে ক্ষমতাও সীমিত। তবুও তাঁরা সাধারন মানুষের স্বার্থে চেষ্টা করবেন যে কোন ধরনের অনিয়ম আটকাতে। এই ধরনের অভিযান এখন থেকে প্রায়ই সংগঠিত করা হবে শহরের বিভিন্ন প্রান্তে। 

ঢলদিঘী এলাকার একটি রেস্তোরার মালিক মলয় সামন্ত জানিয়েছেন, পুরসভার এই উদ্যোগকে তাঁরা স্বাগত জানাচ্ছেন। এই ধরণের অভিযান লাগাতার হোক। কিছু অসাধু ব্যবসায়ীর জন্য যেন সকলের ক্ষতি না হয়। 
ভাগাড় কাণ্ডের জের, বর্ধমানের রেস্তোরায় হানাদারি পুরসভার
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top