728x90 AdSpace

Latest News

Saturday, 12 May 2018

৮মাসের শিশুকন্যাকে আছড়ে মেরে ফেলে মায়ের আত্মহত্যার চেষ্ট,চাঞ্চল্য

ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,আউশগ্রামঃ শিশু কন্যাকে নিয়ে পাড়ায় মরা বাড়িতে নিয়ে যাওয়া নিয়ে শাশুড়ির সঙ্গে বিবাদের জেরে স্ত্রীকে মারধোর করায় নিজের ৮ মাসের শিশুকন্যাকে ছুঁড়ে ফেলে দিয়ে নিজেই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন এক গৃহবধু। এই ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ৮ মাসের শিশু কন্যা সুমনা বাগ্দীর। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই গৃহবধু সুপ্রিয়া বাগ্দীকে ভর্তি করা হয়েছে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে আউশগ্রামের বাগ্দী পাড়ায়।
সুপ্রিয়া বাগ্দীর স্বামী ভীষ্ম বাগ্দী জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার গ্রামেরই এক প্রতিবেশী মারা যান। এই ঘটনায় সুপ্রিয়াদেবীর শাশুড়ি মমতা বাগ্দী নাতনি সুমনা বাগ্দীকে নিয়ে ওই মৃত প্রতিবেশীর বাড়িতে যান। কেন শিশুটিকে মরা বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে তা নিয়েই শাশুড়ী মমতা বাগ্দীর সঙ্গে তীব্র বচসা হয় সুপ্রিয়ার। এরপর স্বামী ভী‌ষ্ম বাগদী বাড়ি ফিরে এই ঘটনা শুনে সুপ্রিয়া দেবীকে মারধোর করেন। শনিবার সকালে এই ঘটনার জেরে সুপ্রিয়া দেবী তাঁর শিশুকন্যাকে প্রথমে আছাড় মারেন। তাতেই মৃত্যু হয় শিশুটির। এরপরই তিনি গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে প্রথম আউশগ্রামের বননবগ্রাম এবং পরে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

যদিও এই ঘটনার বিষয়ে সুপ্রিয়াদেবী ভিন্ন ভিন্ন কথা বলেছেন। কখনও তিনি জানিয়েছেন, স্বামীর মারধোরের পর অভিমানে শিশুটিকে তিনি চড়থাপ্পড় মেরে নিজেই গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। কিন্তু শিশুটি তাকে না ছাড়ায় তিনি শিশুটিকে ছুঁড়ে ফেলে দেন। আবার পরক্ষণেই তিনি জানিয়েছেন, তাকে না ছাড়ায় তিনি শিশুটিকে একটু মারধোর করে নাইলন দড়ির ফাঁসে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। কিন্তু দড়ি ছিঁড়ে তিনি শিশুটির ওপরই পড়ে যান। তাতেই মৃত্যু হয় শিশুটির। এই ঘটনায় আউশগ্রাম থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।
৮মাসের শিশুকন্যাকে আছড়ে মেরে ফেলে মায়ের আত্মহত্যার চেষ্ট,চাঞ্চল্য
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top