728x90 AdSpace

Latest News

Friday, 4 May 2018

পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে নির্বাচন কমিশনের একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারী

ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,পূর্ব বর্ধমানঃ এখনও পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিন নিয়ে সর্বসম্মত কোনো ঘোষণা হয়নি। রাজ্য সরকার এবং নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ১৪ মে পঞ্চায়েত ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করা হলেও ভোটের চূড়ান্ত দিনক্ষণ ঘোষণা নিয়ে জটিলতা রয়েই গেছে ।কোর্টকে না জানিয়ে নির্বাচন কমিশনের দিনক্ষণ ঘোষণা নিয়ে যখন পঞ্চায়েত নির্বাচন কবে তা নিয়ে বিস্তর জল্পনা কল্পনা এবং চায়ে পে চর্চা তুঙ্গে উঠেছে, সেই সময় রীতিমত তীব্র গরমের মধ্যে ভোটপর্ব হচ্ছে ধরে নিয়েই রাজ্য নির্বাচন কমিশনার একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারী করে দিলেন। তীব্র গরমের মধ্যে ভোট হছে ধরে নিয়ে সমস্ত বুথে পর্যাপ্ত পানীয় জল ছাড়াও ভোট কর্মীদের জন্য 'হেল্থ কীট'-এর মধ্যে ৬ প্যাকেট করে ওআরএস দেবার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও ভোট কর্মীদের জন্য বরাদ্দ এই হেল্থ কীটের মধ্যে রাখতে বলা হয়েছে, প্যারাসিটামল ট্যাবলেট (৫০০এমজি), মেট্রোনিডাজল (৪০০ এমজি) এবং ১০টি করে এন্টাসিড ট্যাবলেট। এছাড়াও ব্যাণ্ডেজ, গজ প্রভৃতিও রাখতে বলা হয়েছে ওই কিটের মধ্যে। 
রাজ্য নির্বাচন কমিশন থেকে পাঠানো জেলা প্রশাসনের কাছে এই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে জেলা মুখ্য স্বাস্থাধিকারিকের সঙ্গে পরামর্শ করেই আউশগ্রাম ১ ও ২, ভাতার, বর্ধমান ১ ও ২, গলসী ১ ও ২, জামালপুর, কালনা ১ ও ২, খণ্ডঘোষ, মেমারী ১ ও ২, মন্তেশ্বর, পূর্বস্থলী ১ ও ২ এবং রায়না ১ ও ২ -এর মোট ২৮১৫টি বুথেই যাতে এই হেল্থ কীট পৌঁছায় তা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। এরই পাশাপাশি পর্যাপ্ত পানীয় জলের সুবন্দোবস্ত করার নির্দেশিকাও জারী করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ৩০ এপ্রিল রাজ্য নির্বাচন কমিশনের পাঠানো পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে পৃথক পৃথক নির্দেশিকায় সাম্প্রতিক রাজনৈতিক পরিস্থিতির জন্য ভোট কর্মীদের নিরাপত্তার বিষয়টিকেও গুরুত্ব দিয়ে দেখতে বলা হয়েছে। ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে ভোট কর্মীদের দুর্ঘটনাজনিত ক্ষতিপূরণের ঘোষণা করা হয়েছে। নির্দেশিকায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের জন্যও কয়েকটি নির্দেশিকাকে গুরুত্ব দিয়ে দেখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বুথের ১০০ মিটারের মধ্যে নির্বাচন কমিশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক ছাড়া মোবাইল ফোন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বুথের ২০০ মিটারের মধ্যে রাজনৈতিক দলের ক্যাম্প করার ক্ষেত্রেও নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, এক একটি ক্যাম্পে একটি টেবিল এবং ২টি চেয়ার এবং মাত্র ২জনের বেশি কোনো রাজনৈতিক কর্মী থাকতে পারবেন না। কোনো কোনো ক্ষেত্রে যদি একই ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে একাধিক বুথ থাকে তাহলে সেক্ষেত্রে এই ক্যাম্পে একজন অতিরিক্ত রাজনৈতিক কর্মী থাকতে পারবেন। বলা হয়েছে, ওই ক্যাম্প থেকে বুথ স্লিপ দেবার ক্ষেত্রেও ভোটারদের নাম ও ভোটার তালিকা অনুযায়ী সিরিয়াল নম্বর ছাড়া দলীয় কোনো প্রতীক চিহ্ন বা নাম ব্যবহার করা চলবে না। বুথ এজেণ্টদের ক্ষেত্রে তাদের ভোটের পরিচয়পত্র অবশ্যই গলায় ঝুলিয়ে রাখতে হবে। একইসঙ্গে সংশ্লিষ্ট কোন প্রার্থীর তিনি এজেণ্ট সেই প্রার্থীর নাম কার্ডে ঝুলিয়ে রাখতে হবে। সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর দলীয় নাম বা প্রতীক ব্যবহার করা চলবে না।

রাজ্য নির্বাচন কমিশন থেকে জারী করা এই নির্দেশিকায় সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বুথের ১০০ মিটারের মধ্যে অবাঞ্ছিত কোনো ব্যক্তি মোবাইল ফোন ব্যবহার করলে তার বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট বুথের প্রিসাইডিং অফিসারকে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। সেক্ষেত্রে তিনি যদি ব্যবস্থা গ্রহণ না করেন তাহলে সেক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রিসাইডিং অফিসারের বিরুদ্ধেই নির্বাচন কমিশন ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।
পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে নির্বাচন কমিশনের একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারী
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top