728x90 AdSpace

Latest News

Wednesday, 11 April 2018

বাংলা নববর্ষ মানেই ক্যালেন্ডার,মিষ্টি আর নতুন কিছু কেনাকাটা


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক: ভারতের সাংস্কৃতিক রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ পয়লা বৈশাখ(বাংলা বছরের প্রথম দিন ) উদযাপনে একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছে। নববর্ষারম্ভ উপলক্ষে সকাল থেকে শহরের রাজপথে এবং অলিতে গলিতে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা আয়োজিত হয়। ধনী দরিদ্র নির্বিশেষে রাজ্যের সমস্ত জেলার মানুষ একমাস ধরে নতুন জামাকাপড় ইত্যাদি ক্রয় করে থাকে। পয়লা বৈশাখের দিন রাস্তায়,দোকানে উল্লেখযোগ্য ভিড় থাকে চোখে পড়ার মত। দোকানিরাও হাসিমুখে খদ্দেরদের আপ্যায়ন করেন। তাঁদের হাতে তুলে দেওয়া হয় নতুন বছরের বাংলা ক্যালেন্ডার ,সঙ্গে মিষ্টির প্যাকেট। পাশাপাশি দোকানির ঘরেও বকেয়া টাকা পরিশোধ করে নতুন খাতায় নতুন হিসেব শুরু হয় আমি বাঙালির। এইদিন বাঙালি ফিরে যায় তার ঐতিহ্যবাহী পোশাক ধুতি-পাঞ্জাবি এবং শাড়িতে। বিগত বছরের সমস্ত গ্লানি মুছে ফেলে নতুনভাবে জীবন শুরু করার ব্রত নিয়ে উদযাপিত হয় পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠান।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য,আকবরের সময়কাল থেকেই বাংলায় পহেলা বৈশাখ উদ্‌যাপন শুরু হয়। তখন প্রত্যেককে চৈত্র মাসের শেষ দিনের মধ্যে সব খাজনা, মাশুল ও শুল্ক পরিশোধ করতে হত। এর পরের দিন অর্থাৎ পহেলা বৈশাখে জমির মালিকরা নিজ নিজ অঞ্চলের অধিবাসীদেরকে মিষ্টান্ন সহযোগে আপ্যায়ন করতেন। এ উপলক্ষ্যে বিভিন্ন উৎসবের আয়োজন করা হত। এই উৎসবটি একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে পরিণত হয় যার রুপ পরিবর্তন হয়ে বর্তমানে বাংলা বর্ষবরণ পর্যায়ে এসেছে।

তখনকার সময় এই দিনের প্রধান ঘটনা ছিল একটি হালখাতা তৈরী করা। হালখাতা বলতে একটি নতুন হিসাব বই বোঝানো হয়েছে। প্রকৃতপক্ষে হালখাতা হল বাংলা সনের প্রথম দিনে দোকানপাঠের হিসাব আনুষ্ঠানিকভাবে নথিবদ্ধ করার প্রক্রিয়া। গ্রাম, শহর বা বাণিজ্যিক এলাকা, সকল স্থানেই পুরনো বছরের হিসাব বই বন্ধ করে নতুন হিসাব বই খোলা হয়। হালখাতার দিনে দোকনদাররা তাদের ক্রেতাদের মিষ্টি মুখের সাথে আপ্যায়ন করে থাকে। এই প্রথাটি এখনও অনেকাংশে প্রচলিত আছে, বিশেষত সোনা-রুপার দোকানে। এছাড়াও প্রায় সব বাঙালি ব্যাবসায়ী এদিনটিকে শুভ মনে করে পূজার্চ্চনারও আয়োজন করে থাকে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে।

আধুনিক নববর্ষ উদযাপনের খবর প্রথম পাওয়া যায় ১৯১৭ সালে। প্রথম মহাযুদ্ধে ব্রিটিশদের বিজয় কামনা করে সে বছর পহেলা বৈশাখে হোম কীর্ত্তণ ও পূজার ব্যবস্থা করা হয়। এরপর ১৯৩৮ সালেও অনুরূপ কর্মকান্ডের উল্লেখ পাওযা যায়। যদিও ১৯৬৭ সনের আগে ঘটা করে বাংলায় পহেলা বৈশাখ পালনের রীতি তেমন একটা জনপ্রিয় হয় নি।


বাংলা নববর্ষ মানেই ক্যালেন্ডার,মিষ্টি আর নতুন কিছু কেনাকাটা
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top