728x90 AdSpace

Latest News

Wednesday, 25 April 2018

বর্ধমান হাসপাতাল নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ খোদ রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের প্রতিনিধিদের


ফোকাস বেঙ্গল ডেস্ক,বর্ধমান: বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের রোগী পরিষেবা এবং বিভিন্ন ওয়ার্ডের অব্যবস্থা নিয়ে রোগী ও রোগীর পরিজনেদের অভিযোগ প্রায়ই সামনে আসে। এবার খোদ রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের সচিব পর্যায়ের আধিকারিকরা বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডের চেহারা সরজমিনে খতিয়ে দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করে গেলেন। এমনকি রাতের হাসপাতালে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যাবস্থার অভাবকেও চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়ে গেলেন খোদ হাসপাতাল সুপার এবং ডেপুটি সুপারদের। সমস্ত অবাবস্থা নিয়ে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশও দিয়ে গেলেন তাঁরা।
বর্ধমান হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে,মঙ্গলবার রাত সাড়ে ন'টা নাগাদ বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সার্বিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে আসেন রাজ্য স্বাস্থ্য সচিব অনিল ভার্মার নেতৃত্বে ৭ সদস্যের প্রতিনিধি দল। প্রতিনিধি দলে ছিলেন রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের বিভিন্ন বিভাগীয় প্রধান তথা সচিব পর্যায়ের আধিকারিকরা। প্রতিনিধি দলটি হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে দেখেন। ইএনটি, চক্ষু প্রভৃতি বিভাগ ছাড়াও ব্লাড ব্যাংকেও যান তাঁরা। কিন্তু এই সমস্ত বিভাগ ঘুরে কার্যত অসন্তোষ প্রকাশ করেন প্রতিনিধিদলটি। মূলত প্রয়োজনের তুলনায় বিভাগগুলিতে ডাক্তার ও নার্স কম থাকায় প্রতিনিধিদলের সদস্যরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন বলে সূত্রের খবর। এরপর হাসপাতাল থেকে বেরিয়ে যাবার সময় আচমকা মূল ফটকের সামনে দাঁড়িয়ে পড়েন প্রতিনিধি দলটি। ফটকে কেন কোন নিরাপত্তারক্ষী নেই সে ব্যাপারে জানতে চান সুপারের কাছে। একইসঙ্গে সেই মুহূর্তে হাসপাতালে কতজন নিরাপত্তারক্ষী রয়েছেন তাদের সকলকে জড়ো করার জন্য বলেন প্রতিনিধি দলের কর্তারা। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ প্রতিনিধিদলকে জানান, নৈশ প্রহরী হিসাবে ২১জন রয়েছেন। প্রতিনিধিদলটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ৪মিনিট সময় বরাদ্দ করে এর মধ্যেই ২১জনকে হাজির করতে বলেন। কিন্তু কার্যত মাত্র ৪জন নিরাপত্তারক্ষী এসে হাজির হন। কিন্তু তাঁদের নিরাপত্তারক্ষীর নির্দিষ্ট পোশাক বা ব্যাচ কিছুই ছিল না। এরপরই প্রতিনিধিদলটি গোটা বিষয়টি নিয়ে হাসপাতাল কতৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবার নির্দেশ দেন।
যদিও এই বিষয় সম্পর্কে হাসপাতালের ডেপুটি সুপার ডা. অমিতাভ সাহা জানিয়েছেন, প্রতিনিধিদলটি বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে দেখেছেন। প্রশাসনিক বৈঠকও করেছেন। তবে তাঁরা কি কি বিষয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন সে বিষয়ে তিনি কিছু বলতে পারবেন না। যা বলার প্রতিনিধিদলই বলবেন।
অন্যদিকে মঙ্গলবার প্রতিনিধিদলটি প্রথমে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সমস্ত বিভাগীয় প্রধান, হাসপাতাল সুপার সহ জেলাশাসক এবং হাসপাতাল সংশ্লিষ্ট পূর্ত,বিদ্যুৎ ও অন্যান্য দপ্তরের আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠক করেন। বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বর্তমান পরিকাঠামো ও পরিস্থিতি সম্পর্কে তাঁরা বিস্তারিত জানতে চান। কোথায় কি কি অসুবিধা রয়েছে এবং কি কি বিষয় আশু করা প্রয়োজন সে বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন।
জানা গেছে, রাত্রি প্রায় সাড়ে এগারোটা নাগাদ হাসপাতাল পরিদর্শন করে প্রতিনিধিদলটি কলকাতার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে যান।
বর্ধমানের জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানিয়েছেন, রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের সচিব পর্যায়ের প্রতিনিধিদল মঙ্গলবার এসেছিলেন। হাসপাতালের পরিকাঠামোগত উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা হয়েছে।
বর্ধমান হাসপাতাল নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ খোদ রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের প্রতিনিধিদের
  • Blogger Comments
  • Facebook Comments

0 comments:

Post a Comment

Top